মোদী সরকার নিতে চলেছেন এক ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত, এর দরুন উপকৃত হবেন দেশের নিম্ন ও মধ্যবিত্তের মানুষেরা…

বর্তমানে এখনো পর্যন্ত বহু মানুষ স্বাস্থ্য পরিষেবার বাইরে রয়েছে। টাকার অভাব থেকে শুরু করে নানান সমস্যার কারণে ফল ভোগ করতে হচ্ছে দেশের সাধারন মানুষদের। কিন্তু এই সমস্যার সমাধান করতে মাঠে নেমে পড়েছে মোদি সরকার। স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে বড়োসড়ো পদক্ষেপ নিতে চলেছে মোদি সরকার। এই পদক্ষেপ বিশেষ করে নিম্ন, মধ্যবিত্ত মানুষ এবং আর মধ্যম আয়ের মানুষদের জন্য বিশেষ স্বাস্থ্যবিমা চালু করতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। খবর পাওয়া যাচ্ছে এই প্রকল্পের দৌড় বহু সাধারণ মানুষ উপকৃত হবেন।

ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছে নীতি আয়োগ। এই প্রকল্পের নাম দেওয়া হয়েছে ‘হেলথ সিস্টেম ফর নিউ ইন্ডিয়া।’ দেশের প্রায় অধিকাংশ মধ্যবিত্ত পরিবারের মধ্যে অন্তর্গত। এবং এই সমস্ত মানুষেরা সব দিক থেকেই চাপে থাকে। অর্থনীতি ব্যবস্থা কে শুরু করে বিভিন্ন ক্ষেত্রে এই সমাজের বিশাল একটা মানুষ উপেক্ষিত থাকে। এবং এই মধ্যবিত্ত সমাজের মানুষদের জন্য কোন স্বাস্থ্যবীমা নেই। এরপর নরেন্দ্র মোদি ক্ষমতায় আসার পর বিশ্বের সবথেকে বড় স্বাস্থ্যবীমা আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প চালু করেছিলেন নরেন্দ্র মোদী।

নিম্নবিত্ত মানুষরা এই প্রকল্পের সুবিধা পেয়েছিলেন কিন্তু মধ্যবিত্ত সমাজের মানুষেরা এই প্রকল্পের সুবিধা। তাই তাদের কথা ভেবেই এই প্রকল্প চালু করা হয়েছে বলে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার সূত্রে খবর পাওয়া গেছে এই ‘হেলথ সিস্টেম ফর নিউ ইন্ডিয়া’ প্রকল্পের আওতায় দেশের 50% মধ্যবিত্ত থাকবেন। এমনটাই আশা রয়েছে মোদি সরকারের। এই প্রকল্প চালু হলে মাত্র 200 থেকে 300 টাকার প্রিমিয়াম দিয়ে দারুন চিকিৎসার সুযোগ পাবেন মধ্যবিত্তরা।

এই প্রকল্পের দ্বারা ভালো ভালো হাসপাতালে চিকিৎসার সুযোগ পাবেন মধ্যবিত্ত সাধারণ মানুষেরা।
খবর সূত্রে জানা গিয়েছে, গোটা দেশজুড়ে নীতি আয়োগ এর চালানোর সমীক্ষা দ্বারা দেখা গিয়েছে দেশের মোট 40 শতাংশ মানুষ আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের সুবিধা পাচ্ছেন। পরবর্তীকালে 2022 সালের মধ্যে গোটা দেশে 1.5 লাখ হেলথ এন্ড ওয়েলেনস সেন্টার খোলার পরিকল্পনা রয়েছে মোদি সরকারের। ডায়াবেটিস থেকে শুরু করে ক্যান্সার পর্যন্ত সমস্ত রকম বড় বড় রোগের চিকিৎসা হবে সেন্টার গুলিতে।