চীনকে জব্দ করার প্রস্তুতি নিচ্ছে মোদী সরকার, চীনের ওপর লাগানো হলো প্রতিবন্ধ !

যখন থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশের ভার সামলেছেন, তিনি এমন অনেক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যা এর আগে কোনো নেতা নেয়নি। মোদীজির প্রশংসা আজ পুরো দেশ জুড়ে, কারণ জিএসটি এবং নোট বদলি এর মতো বড়ো সিদ্ধান্ত অন্য কোন সরকারের পক্ষে করা সহজ নয়। আরো একবার মোদীজি এমন একটি ক্রান্তিকারী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এতে ভারতের প্রতিবেশী দেশ চীনের ক্ষতি হতে পারে। আজ আমরা আপনাদের জানাবো , মোদীজী চীনের প্রতি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তার সম্বন্ধে। ভারত পুরো বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বড় দুধের উৎপাদক এবং উপভোক্তা কিন্তু তা সত্ত্বেও ভারতে দুধ এবং দুধ থেকে উৎপাদিত পণ্য গুলি বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয়।

আর এমতাবস্থায় ভারতের প্রতিবেশী দেশ চীন তার নিজের ছোট বড় সব রকম জিনিস ভারতে বিক্রি করতে চাই কিন্তু মোদীজি চীন থেকে আসা দুধ এবং সেই দুধ থেকে তৈরি বিভিন্ন জিনিসের ওপর প্রতিবন্ধ লাগিয়ে দিয়েছেন। এরও আগে ২০০৮ এ ইউপিএর সরকার চীন থেকে আসা দুধ এবং দুধ দিয়ে তৈরি জিনিসের ওপর প্রতিবন্ধ লাগিয়েছিলেন এবং তারপর থেকে এর সীমা দিন দিন বাড়ানো হচ্ছে। চীন সম্বন্ধে একটি সমালোচনাই এটা শোনা যাচ্ছে যে , চীন দুধে একটি রাসায়নিক পদার্থ মেশাচ্ছে আর সেই পদার্থটির নম হচ্ছে মেমালাইন।আপনারা কি জানেন এই মেমালাইনটি এমন একটি পদার্থ যার সাহায্যে প্লাস্টিক ও তৈরি করা হয়। এই মেমালাইনের সেবন করলে বিভিন্ন ক্ষতিকারক রোগ হতে পারে এবং ক্যান্সার , প্যারালাইসিস এবং কিডনির পর্যন্ত ক্ষতি হতে পারে।

আর এই মেমালাইন পদার্থটির ওপর ভারত ছাড়াও আরো অন্যান্য বিভিন্ন দেশ প্রতিবন্ধী লাগিয়েছে। এখনো পর্যন্ত চীনের ওপর এই প্রতিবন্ধটি ২০১৮ পর্যন্ত লাগানো হয়েছিল কিন্তু মোদি সরকার এটি ৪ মাস বাড়িয়ে এই প্রতিবন্ধ টিকে বাড়িয়ে ২৩ এপ্রিল ২০১৯ পর্যন্ত বাড়িয়ে দিয়েছে।
আপনারা কী মোদি সরকারের এই সিদ্ধান্তে খুশি? আপনাদের মতামত অবশ্যই জানাবেন আমাদের কমেন্ট বক্সে।

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close