ভারতে 3 লাখ কোটি টাকা বিনিয়োগ করতে চলেছে মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থা স্যামসাং, মিলবে কর্মসংস্থানের সুযোগ..

করোনা যে আজ গোটা বিশ্বজুড়ে মহামারি আকার ধারণ করেছে তার পেছনে যে রয়েছে চীন তা সকল দেশেই জানতে পেরে গেছে এবং সকল দেশেই এখন চীনের বিরুদ্ধে সরব হতে শুরু করে দিয়েছে। বিশ্বের একাধিক দেশকে ইতিমধ্যে চীনের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করতেও দেখতে পাওয়া যাচ্ছে। শুধু তাই নয় এখন একাধিক মোবাইল কোম্পানি সংস্থা চীন থেকে তাদের ব্যবসা গুটিয়ে অন্যান্য জায়গায় স্থানান্তর করতেও শুরু করে দিয়েছে। আর গত কয়েক সপ্তাহ আগেই চীন থেকে কারখানা গুটিয়ে ভারতে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল জনপ্রিয় সংস্থা অ্যাপেল।

 

তবে এবার যে খবরটি বেরিয়ে আসছে সেখানে জানতে পারা যাচ্ছে মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থা স্যামসাং তাদের ভিয়েতনাম থেকে কারখানা সরিয়ে ভারতে আনতে চলেছে। এই দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্থাটি জানিয়েছে প্রায় তিন লাখ কোটি টাকার বেশি ব্যবসা ভারতের স্থানান্তরিত করতে চলেছে তারা আগামী দিনে। মোবাইল প্রস্তুত কারক সংস্থা স্যামসাং ভারতে তাদের স্মার্টফোনের নানা যন্ত্রাংশ উৎপাদন করতে চাইছে এবং আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে ভারতে 25 বিলিয়নেরও বেশি ব্যবসা করতে চাইছে।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা যাচ্ছে ভারতে উৎপাদিত এই ফোন গুলির দাম প্রায় 200 ডলারের কাছাকাছি হবে অর্থাৎ ভারতীয় মুদ্রায় যা দাঁড়াবে 14-15 হাজার টাকার কাছাকাছি। বলে রাখি এক্ষেত্রে ভারতে তৈরি এই স্মার্টফোন গুলি বেশিরভাগ তারা বাইরে রপ্তানি করবে, এর পাশাপাশি এ কথা বলে রাখি স্যামসাংয়ের বৃহত্তম স্মার্টফোন নির্মাতা ইউনিট ইতিমধ্যে নয়ডাতে নিয়ে আসা হয়েছে সেখান থেকে গোটা বিশ্বে স্মার্টফোন রপ্তানি করে তারা। প্রসঙ্গত, বর্তমানে গোটা বিশ্বে চীনের পর ভিয়েতনাম থেকে কিন্তু সবচেয়ে বেশি স্মার্টফোন রপ্তানি করা হয়ে থাকে।

 

তাছাড়া স্যামসাংয়ের প্রায় 50% ফোন তৈরি করা হয় ভিয়েতনামে তার পাশাপাশি ইন্দোনেশিয়ায় থেকেও একটা বড় অংশ তৈরি করা হয়ে থাকে। এবার ভিয়েতনাম থেকে কারখানা একটা বড় অংশ ভারতে সরিয়ে আনার প্রকল্প করেছে স্যামসাং। 1 ই আগস্ট এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ জানিয়েছিলেন ভারতে ব্যবসার দিক আস্তে আস্তে খুলতে চলেছে কারণ আগামী দিনে ভারতে 22 টি কোম্পানি ব্যবসা করতে ইচ্ছুক রয়েছে। এর মধ্যে কয়েকটি সংস্থার নাম তিনি তুলে ধরেছিলেন যার মধ্যে ছিল ফক্সকন, উইসস্টোন, স্যামসাং, ও পেগাট্রনের মতো মত বড় বড় কোম্পানির নাম।