AYUSH মন্ত্রকের তরফ থেকে করোনা সংক্রমণ রুখতে জানানো হল হোমিওপ্যাথি ওষুধের নাম

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের চেয়েও এখন কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হচ্ছে গোটা বিশ্ব। আর দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধেও হয়তো এটতা মর্মান্তিক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি যতটা এই মরন ভাইরাস COVID-19 এর জেরে এখন গোটা বিশ্বে সৃষ্টি হয়েছে। এই মুহূর্তে গোটা বিশ্বে এই মরন ভাইরাস COVID-19 এর জেরে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে 35 লাখের ও বেশি আর এই মরণ ভাইরাসে জেরে মারা গিয়েছে গোটা বিশ্ব জুড়ে প্রায় 2.5 লক্ষ মানুষ। ভারতের মানুষও বাদ যাইনি এই মরণ ভাইরাসের প্রকোপের হাত থেকে এই মুহূর্তে ভারতে এই ভাইরাস এর জেরে আক্রান্তের সংখ্যা 42 হাজার 505 জন, আর এই ভাইরাসের জেরে ভারতে মারা গিয়েছে 1391 জন।

আর এই আক্রান্তের সংখ্যার মধ্যে এখনো পর্যন্ত রয়েছে 29,335 টি অ্যাক্টিভ কেস, অন্যদিকে এই মরণ ভাইরাসকে হারিয়ে 11,775 জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। বিশ্বের সকল বৈজ্ঞানিকরা দিন রাত্র এক করে উঠে পড়ে লেগেছে এই মরণ ভাইরাসের প্রতিষেধক তৈরি করতে। আর কেন্দ্রের AYUSH মন্ত্রকের তরফ থেকে এই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে হোমিওপ্যাথি এর ব্রায়োনিয়া অ্যালবা (Bryonia Alba), রাস টক্স (Rhus tox), বেলাডোনা গেলসেমিয়াম ইউপেটেরিয়াম (Belladonna Gelsemium Eupatorium) ইত্যাদি ওষুধ চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে খাওয়া যেতে পারে এমনটাই জানানো হয়েছে।

তাছাড়া AYUSH মন্ত্রকের ওই নির্দেশিকায় উল্লেখিত হোমিওপ্যাথি ওষুধের নাম আর্সেনিকাম অ্যালবাম 30সি (Arsenicum Album 30c)। এই ওষুধটিকে খালিপেটে দিনে একবার করে পর পর তিন দিন খাবার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে বর্ণনা দিতে গিয়ে AYUSH মন্ত্রকের তরফ থেকে জারি করা বিবৃতিতে জানানো হয়েছে এই মরন ভাইরাস করোনা সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে প্রয়োজন রয়েছে শরীরের রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা।

আর উল্লেখিত এই আয়ুর্বেদিক,ও হোমিওপ্যাথি ওষুধ গুলি আপনার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কে বাড়াবে। শুধু তাই নয় আয়ুস মন্ত্রকের তরফ থেকে জারি করা বিবৃতিতে জানানো হয়েছে পাঁচটি বিকল্প চিকিৎসা পদ্ধতির মাধ্যমে নির্ভর করে এবার করোনা মোকাবেলাতে সাহায্য করবে যে গুলি হল যোগাভ্যাস, আয়ুর্বেদিক, হোমিওপ্যাথি, ইউনানি ও সিদ্ধা। কেন্দ্রের AYUSH মন্ত্রকের তরফ থেকে করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে সচেতনতা ও আগাম সতর্কতার পাশাপাশি ভারতীয় বিকল্প চিকিত্‍সা পদ্ধতির উপর ভরসা রেখেছে তারা।

More Stories
আপনি কী জানেন ঠান্ডা জল আপনার শরীরে কী কী মারাত্মক ক্ষতি ডেকে আনছে।