ভারতীয় বায়ুসেনার অভিযানে খতম মাসুদ আজহারের দুই ভাই ও শ্যালক সহ আরো 5 জন, তছনছ হয়ে গেল জঙ্গি জইশের ঘর।

জঙ্গিদের উপর ভারতীয় বায়ুসেনা হামলা সফল হয়েছে। মঙ্গলবার ভোররাতে প্রায় 300 জনের মতোন জঙ্গি খতম হয়েছে বলে খবর পাওয়া যায়। জঙ্গিদের উপর উপযুক্ত বদলা নেওয়ার ভারতবাসীরা এখন খুশি। দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন বীর জাওয়ানদের রক্ত ব্যর্থ হতে দেবো না। জানা যায় এই 300 জনের মধ্যে রয়েছে জইশ জঙ্গি গোষ্ঠীর প্রধান মাসুদ আজহারের শ্যালক ইউসুফ আজাহার। মঙ্গলবার ভোরে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের সব থেকে বড় জঙ্গি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের দিকে বোম মেরে উড়িয়ে দেয় ভারতীয় বায়ুসেনা। মিরাজ 2000 নিয়ে নিখুঁত লক্ষ্য ভেদ করে লেজার গাইডেড বোমা। এই বোমার আঘাতে মাসুদ আজহারের দুই ভাই ও শালার মৃত্যু হয়েছে বলে জানা যায়। এদিন মাসুদ আজহারের দুই ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে।

 

মৃত্যু হয়েছে মাসুদ আজহারের ভাই তালহা সইদ,ইব্রাহিম আজহারের, এছাড়াও মৃত্যু হয়েছে কাশ্মীরের জইশের প্রধান আজহার খান ও উমর নামে এক জঙ্গির। এদের মধ্যে ইব্রাহিম আজহার কান্দাহার বিমান অপহরণের ঘটনায় সরাসরি যুক্ত ছিলেন বলে খবর পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার ভোরে পাকিস্তানের আকাশসীমায় ঢুকে পাকিস্তানি জঙ্গি ঘাঁটিগুলো তে হঠাৎ বিমান হামলা চালায় ভারতীয় বায়ুসেনা। ভোর সাড়ে তিনটার সময় একসাথে হামলা চলে বালাকোট, মোজাফফরাবাদ ও চকৌটিতে। গোয়েন্দাদের তথ্যের ভিত্তিতে পাকিস্তানের অসামরিক লক্ষ্যের উপর হামলা চালানো হয়েছে বলে ভারতের বিদেশ মন্ত্রক সূত্রে জানানো হয়েছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে হিন্ডন এয়ার বেস থেকে 12 টি মিরাজ 2000 যুদ্ধ বিমান রওনা দেয়।

 

 

পাকিস্তানী 22 না এ সম্বন্ধে কিছু বুঝে ওঠার আগেই ভারতীয় বায়ুসেনা নিয়ন্ত্রণ রেখাকে অতিক্রম করে 80 কিলোমিটার ভিতরে ঢুকে জইশ এর জঙ্গি প্রশিক্ষণ শিবিরে একের পর এক বোমা বিস্ফোরণ করতে থাকে। ভোর চারটে নাগাদ ভারতীয় বায়ুসেনা নিখুঁত ভাবে অপারেশন শেষ করে নিরাপদে ফিরে আসে। সাউথ ব্লকে গোটা রাত জেগে অভিযানে নজর রেখেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close