নতুন মোটরযান সংশোধিত আইন আপাতত রাজ্যে চালু করা হচ্ছে না একথা স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

যেমন কী আমরা সকলেই জানি গত 1ই সেপ্টেম্বর থেকে দেশজুড়ে চালু হয়েছে নতুন মোটরযান আইন।তবে এই সংশোধিত মোটরযান আইন আপাতত রাজ্যে চালু হচ্ছে না একথা নবান্নে ঘোষণা করে দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।এই দিন তিনি বলেন জারিমানা দিতে 10,000 টাকা পর্যন্ত লাগছে গরীব মানুষ এত টাকা কোথা থেকে জোগাড় করবে সব সময় টাকা দিয়ে যে কোন সমস্যার সমাধান হয় না।

গত পয়লা সেপ্টেম্বর থেকে দেশজুড়ে বিভিন্ন রাজ্যে চালু হয়েছে এই নতুন মোটরযান সংশোধিত আইন, এই আইনে ট্রাফিক নিয়ম ভাঙলে গনা হচ্ছে মোটা অংকের জরিমানা। শুধু তাই নয় ইতিমধ্যে দিল্লির এক ঘটনা প্রকাশ্যে আসে যেখানে দেখা যায় নিজের গাড়ির চেয়েও বেশি পরিমাণে জরিমানা করা হয় ওই ব্যক্তিকে।আর এই পরিমাণ জরিমানা কমানোর জন্য কেন্দ্রের কাছে আবেদন করা হয়েছে তবে কেন্দ্রীয় পরিবহনমন্ত্রী নীতিন গডকরি জানিয়ে দিয়েছেন এই বিষয়ে কোন প্রকার পা পিছু হবেন না তিনি।

তবে আপাতত পশ্চিমবঙ্গে এই সংশোধিত মোটরযান আইন চালু করা যাবে না এই কথা স্পষ্ট করে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন তিনি নবান্ন বলেন আমরা চালু করব না রাজ্যে এখানে সেভ ড্রাইভ সেভ লাইফ এর মতো কর্মসূচি রয়েছে। যার হয়ে কাজ করছে পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাগুলি, যেখানে দুর্ঘটনার সংখ্যা অনেক কমে গেছে আগের তুলনায়। ওরা নিজের কাজ খুব ভালোভাবে পরিচালিত করছে তাই আমি এখন মোটরযান আইন এখানে চালু করব না।

শুধু তাই নয় তিনি এদিন আরো বলেন আমার সরকার মনে করছে এই নতুন আইনের ফলে রাজ্যের সাধারণ মানুষের ওপরে অতিরিক্ত বোঝা চেপে যেতে পারে।এই দিন সংসদে তিনি মনে করিয়ে দেন, মোটরযান আইনের সংশোধিত বিলের পাশের সময় তৃণমূল সবর হয়েছিল। তিনি বলেন আমরা বলেছিলাম এটা যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর হস্তক্ষেপ করেছে। তবে ওরা আমাদের কোনো কথা শোনেনি একতরফা সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ওরা। কিছু ক্ষেত্রে চালান দাম বেড়েছে 10 হাজার টাকা।


দেশে অনেক গরিব মানুষ আছেন যারা এত মোটা অংকের টাকা কোথা থেকে আনবে, টাকা দিয়ে সব সমস্যার সমাধান হয় না, মানবিক দিক দিয়েও বিবেচনা করা উচিত ছিল তাদের। তবে নতুন মোটরভিকেল আইন নিয়ে অবশ্য এই ব্যাপারে নমনীয় দেখাতে নারাজ হয়ে গেছেন কেন্দ্রীয় সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রী। এই বিষয় নিয়ে যখন কেন্দ্রীয় সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রী কে প্রশ্ন করা হয় তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন যে মানুষের মধ্যে ভয় থাকা দরকার, ট্রাফিক নিয়ম কে অনেকেই আছে যারা বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে থাকে তবে এবার নতুন ট্রাফিক আইন নিয়মে দরুণ তাঁরা সেই কাজ করতে ভয় পাবে।

তবে আরো একবার মনে করিয়ে দিই সংশোধিত ট্রাফিক আইন নিয়ম ভাঙলে আগের তুলনায় কত বেশি জরিমানা দিতে হচ্ছে, উদাহরণস্বরূপ সিটবেল্ট লাগানোর না থাকলে আগে জরিমানা দিতে হতো 100 টাকা তবে এবার থেকে সেই ক্ষেত্রে জরিমানার পরিমাণ হয়েছে হাজার টাকা।দ্বিতীয়তঃ আগের লালবাতি না মানলে জরিমানা দিতে হতো হাজার টাকা তবে এবার থেকে সেখানে জরিমানার পরিমাণ বাড়িয়ে করা হয়েছে 5 হাজার টাকা।আগে মদ্যপান করে গাড়ি চালালে জরিমানা দিতে হতো হাজার টাকা তবে এবার সেটা বেড়ে হয়েছে 10 হাজার টাকা।এছাড়া হেলমেট না থাকলে আগে জরিমানা দিতে হতো 100 টাকা তা এখন বাড়িয়ে করা হয়েছে 500 টাকা। এমন কী গাড়ি চালাতে গিয়ে কোন নাবালক ধরা পড়লে তাকে কঠোর শাস্তি দেওয়ার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এই নতুন নিয়মে।

যেখানে বলা হয়েছে নাবালক অবস্থায় যদি কোন গাড়ি চালক ধরা পড়ে তাহলে তার অভিভাবক অথবা গাড়ির মালিককে 25 হাজার টাকা জরিমানা স্বরূপ দিতে হবে সঙ্গে বাতিল করা হবে গাড়ির রেজিস্ট্রেশন। এমনকি ওই নাবালককে 25 বছর বয়স হওয়া না পর্যন্ত লাইসেন্স দেওয়া হবে না আর।

The India Desk

Indian famous bengali portal, covers the breaking news, trending news, and many more. Email: theindianews.org@gmail.com

Related Articles

Close