সাপের আতঙ্কে ভুগছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী! নিরাপত্তাকে জোরদার করতে মাঠে নামলেন সাপ অধিকারীদের…

সম্প্রতি কিছুদিন আগে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এক অনুষ্ঠানে চিকিৎসকদের কাছে সাপ নিয়ে অস্বস্তি প্রকাশ করেছিলেন। আর তারপরই এই বিষয়টি নিয়ে নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। তবে এদিন তিনি চিকিৎসকদের সামনে কি এমন বলেছেন যাতে করে উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছে প্রশাসন। তবে আপনাদের বলে দি এই দিন মুখ্যমন্ত্রী এসএসকেএম এ চিকিৎসকদের এক অনুষ্ঠানে বলেছিলেন যে প্রচণ্ড গরমে এবং বর্ষার সময় মাঠে ঘাটে সাপের উপদ্রব বাড়ে। আর এই দিন তিনি কৃষকদের এই সাপের উপদ্রব এর হাত থেকে বাঁচার জন্য জুতো পরার উপদেশ দেন।

তাছাড়া তিনি এটাও জানান যে ইলিয়ট পার্কে হাঁটতে গিয়ে তিনি বেশ কয়েকবার সাপের সম্মুখীন হয়েছিলেন,আর এই সাপ এর উপদ্রবে তিনি পার্কে হাঁটা বন্ধ করে দিয়েছেন। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর চিকিৎসকদের সামনে এমন মন্তব্যের পরই রাজ্য প্রশাসন নড়েচড়ে বসে।গত বৃহস্পতিবার বনতলায় চর্মনগরীতে মুখ্যমন্ত্রীর অনুষ্ঠানে নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে আরও জোরদার করতে নিয়োগ করা হয় সাপ শিকারীদের। বিভিন্ন প্রকল্পের শিলন্যাসে ছিল এই অনুষ্ঠান।

মুখ্যমন্ত্রীর এই অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার আগে এবং সভা মঞ্চ ছাড়ার আগে সাপ শিকারিরা খতিয়ে দেখেন কোথাও সাপ রয়েছে কিনা। আর মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তায় সাপ ধরার জন্য বনদপ্তর সুন্দরবনের ঝড়খালি থেকে তিনজন সাপ শিকারীকে এই দিন নিয়োগ করা হয়। গত বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রীর যে অনুষ্ঠানটি সভামঞ্চে অনুষ্ঠিত হয়েছিল সেই সভামঞ্চের আশেপাশে ছিল অনেক বড় বড় ঘাস,ঝোপঝাড়। আর এই কারণে প্রশাসন কোন প্রকার ঝুঁকি নিতে চান নি।

তবে শুধু তাই নয় এই এলাকায় এর আগে থেকেই কেউটে, গোখরো, কালাচ,চন্দ্রবোড়া ইত্যাদি নানান ধরনের বিষাক্ত সাপের উপদ্রব প্রায় দেখা যায়। এই দিন এক সাপ শিকারি জানান মুখ্যমন্ত্রীর অনুষ্ঠানের জন্য তাদের আনা হয়েছে। তারা বন দপ্তরের অধিকারীক এই অনুষ্ঠানে তাদের কাজ হলো আশেপাশে দেখা কোন সাপ রয়েছে কিনা এবং তাদের কাছে অর্ডার রয়েছে সাপ দেখতে পেলে ধরে নিয়ে যাওয়ার।

তবে যেমনটা হয় অর্থাৎ সাধারণত মুখ্যমন্ত্রীর যে কোন অনুষ্ঠানে লক্ষ্য করা যায় নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য উপস্থিত থাকে সেখানে দমকল বাহিনী, বিপর্যয় মোকাবিলা করার দল, স্বাস্থ্য দপ্তর ও ব্লাড ব্যাংক ও প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তর। তবে এইবার প্রথম লক্ষ্য করা গেল যে মুখ্যমন্ত্রীর এই অনুষ্ঠানে নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য হাজির হয়েছিল বনদপ্তর এর সাপ শিকারিরা ও সর্প বিশেষজ্ঞরা।

Related Articles

Close