রাজ্যে দ্বিতীয় বৃহত্তম বিমানবন্দর তৈরীর পরিকল্পনা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

পশ্চিমবঙ্গের সবথেকে বড় বিমানবন্দর হলো নেতাজি সুভাষ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। এবার এই বিমানবন্দরের আদলে আরো একটি বিমানবন্দর তৈরি করার পরিকল্পনা গ্রহণ করল রাজ্য সরকার। মনে করা হচ্ছে তৈরি করা বিমানবন্দরটি রাজ্যের দ্বিতীয় বৃহত্তম বন্দর হিসেবে গণ্য করা হবে অদূর ভবিষ্যতে।

সূত্র মারফত জানা গেছে, ইতিমধ্যেই রাজ্যের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিমানবন্দর তৈরি করার জন্য জমি খোঁজার কাজ শুরু হয়ে গেছে। পশ্চিমবঙ্গের দ্বিতীয় বৃহত্তম বিমানবন্দর তৈরি করার জন্য দক্ষিণ ২৪ পরগনার প্রশাসনকে জমি খোঁজার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সরকারের তরফ থেকে। সূত্র মারফত জানা গেছে, রাজ্যের মুখ্যসচিব হরি কৃষ্ণ দ্বিবেদি দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলাশাসককে একটি চিঠি দিয়েছেন প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য।

নতুন এই বিমানবন্দর তৈরীর পরিকল্পনা গ্রহণ করা হলে অন্তত পক্ষে তিন কিলোমিটার রানওয়ে তৈরি করা হবে। বিমানবন্দর তৈরি করার জন্য ইতিমধ্যেই জমি খোঁজার কাজ শুরু হয়েছে। রাজ্যে এই মুহূর্তে যে সমস্ত বিমানবন্দর রয়েছে, তারমধ্যে নেতাজি সুভাষ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছাড়া বৃহত্তম বিমানবন্দর উত্তরবঙ্গের বাগডোগরা।

উত্তরবঙ্গের বাগডোগরা বিমানবন্দর ব্যবহৃত হলেও এই বিমানবন্দর আকার আয়তনে কলকাতা বিমানবন্দরের থেকে অনেকটাই ছোট। উত্তরবঙ্গের বাগডোগরার ওপর অতিরিক্ত চাপ কমানোর জন্য কেন্দ্রীয় প্রকল্পের আওতায় উত্তরবঙ্গের আরো তিনটি বিমানবন্দর তৈরি করার কাজ শুরু হয়ে গেছে বালুরঘাট মালদহ এবং কোচবিহার জেলায়।

নতুন করে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে দক্ষিণবঙ্গে দ্বিতীয় বৃহত্তম বিমানবন্দর তৈরি করার পরিকল্পনা অনুযায়ী পছন্দসই জায়গা ভাঙ্গড়। এই এলাকায় অনেক বেশি ফাঁকা জমি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে তাই এই এলাকায় নতুন বিমানবন্দর তৈরি করার পরিকল্পনা গ্রহণ করতে চলেছেন পশ্চিমবঙ্গ সরকার।