বিধানসভার মঞ্চ থেকে এ কী বললেন মমতা! মনে হচ্ছে যেন প্রথমবার চন্দ্রযান পাঠানো হল এইসব অর্থনৈতিক বিপর্যয় থেকে নজর ঘোরানোর চেষ্টা..

ইসরোর বিজ্ঞানীরা করতে চলেছেন এক ঐতিহাসিক মুহূর্ত যখন ভারত বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে চাঁদের দক্ষিণ প্রান্তে অবতরণ করবে। দেশের 130 কোটি ভারতীয় ধৈর্য নিয়ে অপেক্ষা করছে এই ঐতিহাসিক মুহূর্তের জন্য। অধীর অপেক্ষায় রয়েছে গোটা দেশ। আজ মধ্যরাতে চাঁদের মাটি স্পর্শ করতে চলেছে লেন্ডার বিক্রম। তবে এসবের মধ্যে ভারতের চন্দ্রযান অভিযান নিয়ে কটাক্ষ করে বসলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এইদিন তিনি বলেন দেশের অর্থনৈতিক বিপর্যয় থেকে নজর ঘোরাতেই করা হচ্ছে এসব, আর মনে হচ্ছে যেন এটা প্রথমবার চন্দ্রযান পাঠানো হলো। আজ বিধানসভায় নাগরিকপঞ্জি বিরোধিতার প্রস্তাব দেয় ফিরহাদ হাকিম আর সেই বিধানসভার মঞ্চে দাঁড়িয়ে মমতা বলেন মনে হচ্ছে যেন এই প্রথমবার চন্দ্রযান পাঠানো হলো। তবে এই নিয়ে বিজেপিকেউ কটাক্ষ করতে ছাড়লেন না তিনি ,বললেন ওরা ক্ষমতায় না থাকলে যেনো এই অভিযান হতো না।

এটা অর্থনৈতিক বিপর্যয় থেকে নজর ঘোরানোর চেষ্টা চলছে।তবে এখানেই শেষ নয় এই দিন রাজ্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা আরো বলেন বিজেপি নেতারা এবার চাঁদে গিয়ে জায়গা রাখুন,আর ওখানেই গিয়ে ফ্ল্যাট বানিয়ে থাকুন।তবে আপনাদের বলে রাখি ইসরোর বিজ্ঞানীদের হাত ধরে চাঁদের দক্ষিণ মেরু পথে চলেছে ভারতের দ্বিতীয় চন্দ্রযান বিক্রম। আর সেই বিক্রমের সুষ্ঠ অবতরণের জন্য তাকিয়ে রয়েছে গোটা দেশ সহ সারা বিশ্ব।তাকিয়ে রয়েছে দেশের প্রধানমন্ত্রী মোদিজী ও।

যার দরুন তিনি আজ বেঙ্গালুরুতে ইসরোর কন্ট্রোলরুম থেকে বিক্রমের অবতরণের মুহূর্তের সাক্ষী থাকবেন। শুধু তাই নয় ভারতের চাঁদের মাটি ছোঁয়ার অপেক্ষায় উচ্ছ্বাসিত রয়েছেন তিনি। এই দিন সকাল থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে লক্ষ্য করা যায় এই বিষয় নিয়ে একাধিক টুইট ও করতে। টুইটে প্রধানমন্ত্রী বলেন 130 কোটি ভারতীয়রা যে মুহুর্তের প্রতীক্ষায় ছিলেন অবশেষে সেই মুহূর্ত এসে গেছে আর মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে চন্দ্রযান অবতরণ করতে চলেছে। আর আমাদের দেশের বিজ্ঞানীদের এই কৃতিত্বের সাক্ষী থাকবে সারা ভারত সহ সমগ্র বিশ্ব।

Related Articles

Close