করোনার জেরে রাজ্যে আপাতত যা যা বন্ধ থাকছে- মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়…

করোনা ভাইরাসের কারনে ভারতে মৃত্যু-মিছিল অব্যাহত রয়েছে। শুধু ভারতে নয় সারা বিশ্বের 150 টিরও বেশি দেশে করোনাভাইরাস থাবা বসিয়েছে। ভারতে এসে অসুস্থ হয়ে পড়া এক ইতালির নাগরিক ইতিমধ্যেই মৃত্যুর খবর আসছে রাজস্থান থেকে। যার ফলে ভারতে করোনাভাইরাস মৃত্যুর সংখ্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে 5 জন। এবং মোট 195 জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত। যত দিন যাচ্ছে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা।

যদিও এই ভাইরাসকে আটকানোর জন্য সরকারের তরফ থেকে যতটা সম্ভব ব্যবস্থা এবং সচেতনতা মূলক বার্তা দেওয়া হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। ব্রিটিশ আমলে 1897 সালে মহামারী আইনে দু নম্বর ধারা প্রয়োগ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অন্য রাজ্যগুলি যেমন কয়েক দফায় নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে তেমনি আমাদের রাজ্যেও নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। করোনা ভাইরাস নিয়ে সোমবারে নবান্নে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জরুরি বৈঠক ডাকেন।

এই বৈঠকে বেশ কয়েকটি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এই বৈঠকে ঠিক করা হয় যে বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান আপাতত বন্ধ করে রাখা হবে।
আসুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক সেদিন বৈঠকে কী কী সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফ থেকে –
1. পৌরসভা নির্বাচন আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে করোনা ভাইরাসের কারণে।
2. রাজ্যের প্রত্যেকটি স্কুল কলেজ তা সরকারি ও বেসরকারি 15 এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। প্রথমে ঠিক করা হয়েছিল 31 শে মার্চ পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। এরপর সেদিনের বৈঠকে তা 15 এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

Advertisements

3. প্রত্যেকটি সিনেমা হল বন্ধ থাকবে 31 শে মার্চ পর্যন্ত এবং কোন রিয়েলিটি শো এর শুটিং হবে না।
4. রাজ্যের সমস্ত অডিটোরিয়াম ও থিয়েটার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে এই দিনের বৈঠকে।
5. এমনকি চিড়িয়াখানায় পর্যটকদের যাওয়া নিষিদ্ধ।
6. ধর্মীয় স্থানে পর্যটকদের যাওয়া বা ভোগ বিতরণ করা সমস্ত আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
7. রাজ্যের সমস্ত চা বাগান গুলি আগামী 31 মার্চ পর্যন্ত বন্ধ থাকবে।8. প্রত্যেকটি সুইমিংপুল, স্টেডিয়াম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে।

Advertisements

9. এছাড়াও জঙ্গলে সাফারি করা এবং সুন্দরবন ভ্রমণ বন্ধ।
10. জাতীয় গ্রন্থাগার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে করোনা ভাইরাসের কারণে।