আবারও শুরু হতে চলেছে দুয়ারে সরকার প্রকল্প, জানুন কী কী সুবিধা মিলবে এইবার ঘোষণা নবান্নের

বিধানসভা নির্বাচনের আগে প্রত্যেকটি সাধারণ মানুষের জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এনেছিলেন দুয়ারে সরকার প্রকল্প। এই দুয়ারে সরকার প্রকল্পের দ্বারা ভীষণ ভাবে লাভবান হয়েছিলেন বহু মানুষ। দিনের পর দিন লাইনে না দাঁড়িয়ে শুধুমাত্র বাড়ির কাছে ক্যাম্পে গিয়ে আধার কার্ড সংশোধন থেকে শুরু করে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড, লক্ষী ভান্ডার থেকে শুরু করে ভোটার আইডি কার্ডের সংশোধন সবকিছুই করা গেছে অনায়াসে। এই ক্যাম্প লাভজনক প্রমানিত হয়েছিল সাধারণ মানুষ থেকে তৃণমূল সরকার সকলের ক্ষেত্রে।

ফের আরো একবার নতুন বছরের নতুন করে দুয়ারে সরকার আনতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী ২রা জানুয়ারি থেকে ১০ জানুয়ারি, দ্বিতীয় দফায় ২০ জানুয়ারি থেকে ৩০ জানুয়ারি চলবেই দুয়ারে সরকার। এই দুই দফার দুয়ারে সরকারে আপনি কোন কোন প্রকল্পের সুযোগ-সুবিধা পাবেন চলুন জেনে নেওয়া যাক।

ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকার যে নির্দেশিকা জারি করেছেন সেখান থেকে জানা গেছে, এবারে দুয়ারে সরকারে যুক্ত হচ্ছে বেশ কয়েকটি নতুন প্রকল্প। এই নতুন প্রকল্পের মধ্যে থাকবে মৎস্যজীবী ক্রেডিট কার্ড, আর্টিসান ক্রেডিট কার্ড, ওয়েদার ক্রেডিট কার্ড সহ যাবতীয় কাজ করা হবে দুয়ারে সরকারে।

এছাড়া পুরনো প্রকল্পের মধ্যে থাকবে স্বাস্থ্য সাথী, খাদ্য সাথী, লক্ষী ভান্ডার, শিক্ষাশ্রী, রূপশ্রী, কন্যাশ্রী,তপশিলি বন্ধু, জয় জোহার, কৃষক বন্ধু ক্রেডিট কার্ডের পরিষেবা। এছাড়া পাওয়া যাবে ১০০ দিনের কাজ, স্টুডেন্ট কার্ড, ঐক্যশ্রী, আধার কার্ড সংক্রান্ত এবং ব্যাংকিং সংক্রান্ত কাজ। এছাড়াও মিউটেশন অথবা অন্যান্য দলিল সংক্রান্ত কাজ করা হবে এই দুয়ারে সরকারে।

ইতিমধ্যেই নবান্নের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, প্রতিটি পৌরসভার ওয়ার্ডে, প্রতি ব্লকের পঞ্চায়েতে এই প্রকল্প রূপায়িত হবে। কারিগরি শিক্ষা দপ্তরের তরফ থেকে একটি নতুন একটি অ্যাপ যুক্ত করা হবে এই দুয়ারে সরকারে, যার নাম দেওয়া হয়েছে আমার কর্ম দিশা। এই অ্যাপটির মাধ্যমে প্রতি মাসে ১০ হাজার কর্মসংস্থান দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা রেখেছে সরকার। নতুন একগুচ্ছ প্রকল্প এনে আরো একবার নতুন বছরে বাজিমাত করার দিকে অগ্রসর হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।