মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘স্মৃতি’ ফিরিয়ে দিলেন ভারতী ঘোষ….

পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন পুলিশ সুপার ভারতী ঘোষ ফিরিয়ে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দেওয়া সমস্ত মেডেল গুলি। শুধু মেডেলেই নয় তিনি ফেরান একদা তাঁর ‘ জঙ্গলমহলের মা’ -এর দেওয়া শংসাপত্রও। জানা যায় স্পিড পোস্ট মারফত সেই মেডেল এবং শংসাপত্র মুখ্যমন্ত্রী কে ফিরিয়ে দেন তিনি। শুধু ফিরিয়ে দেননি তিনি বলেন, তার যোগ্যতা প্রমাণ করার জন্য এগুলির কিছুর প্রয়োজন নেই। ভারতী ঘোষ জানান, তিনি এর আগেও কোন এক বার্তাবাহকের মাধ্যমে তার মেডেল গুলি মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে পাঠিয়ে ছিলেন। কিন্তু সেই বার সেই মেডেল গ্রহণ করা হয়নি। শেষমেষ তিনি স্পিড পোস্টের মাধ্যমে বুধবার মেডেল এবং শংসাপত্র পাঠিয়েছেন। এর সঙ্গে একটি চিঠিও লিখেছেন। মুখ্যমন্ত্রী কে দেওয়া তার চিঠিতে তিনি লিখেছেন, ‘ ভালো কাজের জন্য 2014 সালে মুখ্যমন্ত্রী দেওয়া মেডেল এবং সার্টিফিকেট ফিরিয়ে দিচ্ছি।’আমি কী কাজ করেছি, সেটা জঙ্গলমহলেই বলবে।

এই কাজের জন্য আমার কোন মেডেলের প্রয়োজন নেই। আমি আশা করব অন্য আধিকারিকরা ও আমার পথ অনুসরণ করবেন। যখন তারা অত্যাচারের শিকার হবেন, তখন তারাও আমার মতন মেডেল ফেরত দেবেন।’ এর সঙ্গে তিনি লিখেছেন, ‘ কাজেই মেডেল গুলি ফেরাতে পারতাম। কিন্তু গত বছরের 1 ফেব্রুয়ারি সিআইডি আধিকারিকরা আমার নাকতলার বাড়িতে লুঠ করেছেন। আমার ঘর প্রশ্ন করে দিয়েছেন তারা ফলে মেয়েদের গুলো খুঁজতে কিছু টাইম লেগে গেছে। শেষ পর্যন্ত মেডেল গুলি খুঁজে বের করেছি।’ ভারতীর মেডেল ফেরানোর ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু জানান, ভারতীর মেডেল পোড়ানোর ঘটনার মধ্য দিয়েই সরকারি আধিকারিকদের প্রতি সরকারের উদাসীনতা এবং অপমান পুরোপুরি স্পষ্ট হয়ে গেল। এর পাশাপাশি তিনি কয়েক সপ্তাহ আগে আরেক আইপিএস গৌরব দত্তের আত্মঘাতী হওয়ার প্রসঙ্গ টেনে নিয়ে আসেন। গত 26 শে ডিসেম্বর 2017-তে ভারতীকে রাজ্য সশস্ত্র পুলিশে বদলি করা হয়।

 

তার পরেই তিনি 28 ডিসেম্বর এই পদ থেকে ইস্তফা দেন। এরপর ভারতী কিছুদিন আগে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।