ইতিহাসের সর্বকালের সবচেয়ে খারাপ ছবি হিসাবে মনোনীত হল “সড়ক 2”, গড়ল লজ্জার রেকর্ড

বিগত এক মাস ধরে সড়ক 2 ছবিটি বিভিন্ন ক্ষেত্রে চর্চার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। সুশান্ত সিং রাজপুত এর মৃত্যুর পর থেকে নেটজনতার একাংশ শপথ নিয়েছিলেন এই ছবিটি বয়কট করার। এর আগে যখন এই ছবিটির ট্রেলার মুক্তি পেয়েছিল তখন এই ছবির ট্রেলার টি বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ডিস-লাইক পাওয়া ট্রেলার শিরোনামে উঠে এসেছিল। সুশান্ত সিং রাজপুতের ভক্তরা এই সিনেমা বয়কট করার ডাক দিয়েছিলেন বহুদিন ধরে। তবে গত 28 শে আগস্ট মুক্তি পেয়েছে এই ছবিটি, সিনেমা মুক্তি পাওয়ার পর যেটা জনতা করতে চাইছিল তা করিয়ে দেখিয়েছে, তার প্রমাণস্বরূপ সড়ক 2 এর এই নতুন রেকর্ড।

 

যেখানে IMDb’র (Internet Movie Database) ইতিহাসের সবচেয়ে কম রেটিং পেয়ে রেকর্ড গড়েছে মহেশ ভাট পরিচালিত এই সড়ক 2 ছবিটি। যদিও এর আগেও ট্রেলার মুক্তির সময় বড়সড় ধাক্কা খেয়েছিল মহেশ ভাট পরিচালিত এই ছবিটি। বিশ্বের তৃতীয়তম অপছন্দের তালিকায় নাম লিখিয়েছে সড়ক 2। তবে যাবতীয় বিতর্ক সরিয়ে রেখে যদিও সিনেম্যাটিক দিক থেকে ট্রেলারের আশা জাগলেও মুক্তির পর যেন আবারো মুখ থুবড়ে পড়ল। তবে বলে রাখি সড়ক 2 ছবিটি এবার IMD’b ইতিহাসে এখনো পর্যন্ত সবচেয়ে কম রেটিং পাওয়া ছবির শিরোপা অর্জন করেছে যেখানে IMDb তে 9,821 জন ইউজার দ্বারা এটি রেটিং পেয়েছে মাত্র 1.1।

এর আগে 2015 সালে এক তুর্কি ছবি যার নাম Code name ছিল সেটি 1.3 রেটিং পেয়েছিল তবে এবার সেই স্থান 1.1 রেটিং নিয়ে সেই প্রথম স্থান দখল করেছে সড়ক টু ছবিটি। আর যদি ভারতীয় ছবির মধ্যে সবচেয়ে কম রেটিং পাওয়া ছবির নাম তোলা হয় তাহলে সেখানে রয়েছে হিম্মতওয়ালা যার রেটিং 1.7, তারপর রয়েছে রাম গোপাল বর্মার “আগ” 1.7 রেটিং পেয়েছিল, অভিষেক বচ্চনের “দ্যা লেজেন্ড অফ ড্রোনা” তারপর হিমেশ রেশমিয়ার “কর্জ”‌।


প্রসঙ্গত সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু বিতর্কের পর থেকে একাধিকবার নাম জড়িয়েছে মহেশ ভাটের। তাছাড়া পোস্টার মুক্তির পর আইনে বিপাকে জড়িয়েছিলেন মহেশ ভাট জনতার একাংশ এই ছবিটি বয়কটের ডাকও দিয়েছিলেন। বিটি এইভাবে মুখ থুবড়ে পড়ার পেছনে দুটি কারণ মূলত ধরা হচ্ছে প্রথমটি হল ছবিটি ভাট ক্যাম্পের প্রযোজনায় তৈরি, আর দ্বিতীয়টি হল এই ছবির মূল চরিত্রে যে দুজন স্টার কিড রয়েছেন আলিয়া ভাট ও আদিত্য রায় কাপুর। অতএব নেটজনতার সব ক্ষোভ গিয়ে জমা পড়েছে মহেশ ভাটের এই ছবিটিতে।