আবারো বিতর্কে জড়ালেন মহেশ ভাট! বুড়ো বয়সেও মহেশ ভাটের গোপন কীর্তি ফাঁস করলেন বাড়ির পুত্রবধূ

কন্ট্রোভার্সি ছাড়া গ্লামার ওয়ার্ড কখনো ভেবে দেখেছেন?? ভাবতে পারছেন না নিশ্চয়ই? সত্যিই আমরা কল্পনাই করতে পারি না গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ড এবং কন্ট্রোভার্সি একসঙ্গে থাকবে না। বলিউডের প্রতিটি আনাচে কানাচে লুকিয়ে রয়েছে বিতর্ক। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে তার কিছু অংশ আমরা জানতে পারি তবে বেশিরভাগ আমাদের ধারণার বাইরে থাকে। এমন একটি বিতর্কিত মানুষ হলেন মহেশ ভাট। বিখ্যাত পরিচালক তিনি।তিনি আমাদের একাধিক সিনেমা উপহার দিলেও নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে তিনি সর্বদা খবরে শিরোনামে থাকেন, যার মধ্যে বেশিরভাগ জুড়ে থাকে শুধুমাত্র বিতর্ক।

হাজারো বিতর্কের মধ্যে একটি বিতর্ক হল নিজের মেয়েকে চুমু খাওয়া এবং অন ক্যামেরা নিজের মেয়েকে বিয়ে করার ইচ্ছা প্রকাশ করা। সেই ভাইরাল ভিডিওর কথা আমরা হয়তো অনেকেই জানি। মহেশ ভাট নিজের বড়ো কন্যা পূজা ভাটের সঙ্গে বিবাহের কথা উল্লেখ করেছিলেন। তিনি অন ক্যামেরা বলেছিলেন, “আমি আমার মেয়েকে ভীষণভাবে ভালোবাসি। যদি পূজা আমার মেয়ে না হতো তাহলে আমি ওকে বিয়ে করতাম”।

শুধু বিতর্কিত বক্তব্য প্রকাশ করে মহেশ ভাট ক্ষান্ত হননি, এটি ম্যাগাজিনের শুটিং চলাকালীন তিনি নিজের মেয়েকে কোলে বসে ঠোটে ঠোঁট রেখে চুমু খেয়েছিলেন। এই ছবি দেখে স্বাভাবিকভাবেই অস্বস্তিতে পড়েছিলেন বহু মানুষ। তবে অনেকেই মনে করেছিলেন বয়স বাড়লে হয়তো বিতর্কের তালিকা থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখবেন পরিচালক কিন্তু সে গুরে বালি।

সম্প্রতি মহেশ ভাটের পুত্রবধূ তথা অভিনেত্রী লোভিনা লদ একটি ভিডিও শেয়ার করে শ্বশুর মশাই এর বিরুদ্ধে এমন কিছু অভিযোগ এনেছেন যা শুনে আরো একবার হতবাক হয়ে গেছেন সাধারণ মানুষ। জানিয়ে রাখি, অভিনেত্রী লোভীনা মহেশ ভাটের ভাইপো সুমিত সাবারওয়ালের স্ত্রী। ভিডিওতে অভিনেত্রী তথা মহেশ ভাটের পুত্রবধূ অভিযোগ করে জানিয়েছেন, মহেশ ভাট ক্রমাগত হুমকি দিচ্ছেন তাকে প্রাণে মেরে ফেলার কারণ তিনি জেনে গেছেন তার স্বামী সুমিত এবং মহেশ ভাট দুজনে নিষিদ্ধ জিনিস সরবরাহ করেন। এমনকি তার স্বামী আমিরা দোস্তুর এবং স্বপ্না পাববির মত অভিনেত্রীদের বেআইনি জিনিস সরবরাহ করেন। ভিডিও শেষে তিনি এও বলেছেন, ভবিষ্যতে যদি তাঁর পরিবারের কিছু হয় তার জন্য দায়ী থাকবে তাঁর স্বামী ও শশুর।