কাউকে না বলে বিয়ে করা থেকে অধিনায়কত্ব ছাড়া, ধোনির এই ৭ টি পদক্ষেপে রীতিমতো চমকে গিয়েছিল গোটা দেশবাসী

বহু ভারতীয় খেলোয়াড় এমন রয়েছেন যারা নিজের সামর্থের ভিত্তিতে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। সর্বকালের সেরা ভারতীয় ক্রিকেটার এর মধ্যে একজন হলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। ব্যক্তিগত এবং পেশাগত জীবনের জন্য বহুবার খবরের শিরোনামে উঠে এসেছে এই নাম। ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক তিনি। ক্রিকেটারের জীবনী নিয়ে তৈরি হয়েছিল আস্ত একটি সিনেমা। সম্প্রতি আইপিএল শুরুর কিছু আগেই চেন্নাই সুপার কিংস- এর অধিনায়ক হতে ছেড়ে দিয়েছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনির যার পরিবর্তে এসেছিলেন রবীন্দ্র জাদেজা। মহেন্দ্র সিং ধোনির এই সিদ্ধান্ত সাধারণ মানুষকে ভীষণভাবে অবাক করে দিয়েছিল, তবে এটা প্রথমবার নয় এর আগেও বহুবার এমন অনেক সিদ্ধান্ত তিনি গ্রহণ করেছেন যা মানুষকে চমকে দিতে বাধ্য করেছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক মহেন্দ্র সিং ধোনির জীবনের বেশ কিছু আকস্মিক সিদ্ধান্তের কথা।

১) কাউকে না জানিয়ে বিয়ে করে নেওয়া: ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন ক্রিকেটারের সংখ্যা নেহাত মন্দ নয়। ভারতবর্ষের বাইরেও বহু অনুরাগী রয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনির। কিন্তু যখন ২০১০ সালে চৌঠা জুলাই সাক্ষীর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়ে পড়লেন তিনি হঠাৎ, সে খবর শুনে অনেকেই অবাক হয়ে গিয়েছিলেন।

২) বিশ্বকাপের সময় চুল ছোট করে দেওয়া: ২০০৭ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত মহেন্দ্র সিং ধোনির অধিনায়কত্বে ভারতীয় দল বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। কিন্তু এত কিছুর মধ্যেও একটি জিনিস ছিল বেশ অবাক করার মতো। দুই ম্যাচেই বিশ্বকাপ খেলার সময় দুবার চুলের স্টাইলে বদল এনেছিলেন তিনি। ২০০৭ সালে বিশ্বকাপের ফাইনালে ওঠার পর তিনি ছোট ছোট করে চুল ছেঁটে ফেলেছিলেন যার ফলে ২০১১ সালে যখন বিশ্বকাপ জিতেছিলেন তিনি তখন তাঁর মাথায় টাক পড়ে গিয়েছিল।

৩) হঠাৎ টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে নেওয়া: মহেন্দ্র সিং ধোনি হঠাৎ করেই টেস্ট ক্রিকেট থেকে অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। সেই সময় ভারতীয় দল অস্ট্রেলিয়া টেস্ট সিরিজ খেলতে গিয়েছিল। তবে তিনি নিজে নিজের অবসর নেওয়ার ঘোষণা করেননি, বিসিসিআই এই তথ্য জানিয়েছিলেন সকলকেই যা শুনে অনেকেই অবাক হয়ে গিয়েছিলেন।

৪) ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়া: ২০১৭ সালে তিনি হঠাৎ করে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেবেন তিনি। এরপর ভারতীয় দলের অধিনায়ক হন ক্রিকেটার বিরাট কোহলি। অনেকেই অবাক হয়ে গিয়েছিলেন এই সিদ্ধান্ত শুনে।

৫) ধোনির একটি ভিডিও পোস্ট: ২০২০ সালে ক্রিকেট আর নিজের একটি অফিসিয়াল ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে ভিডিও শেয়ার করেছিলেন যার ক্যাপশনে তিনি লিখেছিলেন, তাকে অবসরপ্রাপ্ত হিসেবে বিবেচনা করে নেওয়া উচিত সকলের।

৬) ২০২০ সালে একজন পরামর্শ দাতা হয়ে সকলকে অবাক করে দিয়েছিলেন তিনি: ২০২০ সালে যখন ভারতীয় ক্রিকেট দলের চোখ ছিল সংযুক্ত আরব আমির শাহীতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের দিকে, ঠিক তখনই নিজেকে ক্রিকেট দলের মেন্টর হিসেবে ঘোষণা করে দিয়ে সকলকে চমকে দেন তিনি। ওই একই বছর বিরাট কোহলি অবসরের ঘোষণা করেন।

৭) চেন্নাই সুপার কিংস এর অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়া: সদ্য অনুষ্ঠিত আইপিএলের শুরুতেই অধিনায়ক হতে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে সকলকে চমকে দিয়েছেন তিনি। এরপর সেই জায়গায় অধিনায়কত্ব দায়ভার নিজের কাঁধে তুলে নেন রবীন্দ্র জাদেজা। কিন্তু এইভাবে হঠাৎ করে অধিনায়ক হতে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত সকলকে চমকে দেয়।