উচ্চতা হার মানাবে স্ট্যাচু অফ ইউনিটিকে, বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু মন্দির তৈরি হতে চলেছে গুজরাটে…

যেভাবে ভারতের স্ট্যাচু অফ ইউনিটি বিশ্বের মধ্যে একটি ছাপ ছেড়েছে, ঠিক সেইভাবে আরও একবার ভারত নিজের ছাপ ছাড়তে চলেছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় মন্দির তৈরি করে। আর এই বিশ্বের সবচেয়ে বড় মন্দিরটি তৈরি করা হতে চলেছে গুজরাটে, তবে এই প্রথমবার নয় এর আগেও সবচেয়ে বড় মূর্তি বানানো হয়েছিল কিন্তু গুজরাটে। তবে এবার যে মূর্তিটিকে বানানো হতে চলেছে সেটি হতে চলেছে বিশ্বের বৃহত্তম মন্দির যেটি গুজরাটে তৈরি করা হবে আর গতকাল শুক্রবার দিন এই মন্দির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে।

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে কুলদেবি মা উমিয়ার একটি 431 ফুট অর্থাৎ 131 মিটার উঁচু মন্দির বানানো হবে। এই মন্দিরটি নির্মিত করতে চলেছে বিশ্ব উমিয়া ফাউন্ডেশন আর এটি কে নির্মাণ করা হবে আহমেদাবাদের বৈষ্ণোদেবী জাসপুরের নিকটে। যেটিকে গতকাল স্থাপন করা হয়েছে কিছুদিন আগে এই নিয়ে আহমেদাবাদের পতিতা সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে মন্দিরভিত্তিক মা উমিয়ার যাত্রা বের করা হয়েছিল, যার মধ্যে ছিল বিপুল সংখ্যক মায়ের ভক্তরা।

শহরের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে নেওয়া এই যাত্রায় 52 গজ পতকাও আনা হয়েছিল আর এই যাত্রা টি ছিল বিশাল বড়।শুধু তাই নয় 37 কিলোমিটার পথ নির্ধারণ করার পর অবশেষে এই যাত্রা গিয়ে পৌঁছায় জসপুরে। যেখানে নির্মাণ করা হতে চলেছে এই মহামন্দির। প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা গেছে 431 ফুট উচ্চতায় নির্মিত এই মন্দিরটি কে তৈরি করতে ব্যয় করা হবে প্রায় এক হাজার কোটি টাকা, এরই সাথে এই মন্দিরটিকে 100 বিঘা জমি জুড়ে নির্মাণ করা হবে। এইদিন মন্দিরভিত্তিক প্রস্থর প্রস্তুতিতে বিশ্বজুড়ে প্রায় দু’লক্ষ ভক্ত উপস্থিত ছিলেন।

এই মন্দির নির্মাণের নকশাটি ভারতীয় স্থাপিত ও জার্মান স্থাপিত একসাথে মিলে তৈরি করেছে।শুধু তাই নয় এই মন্দিরের আভ্যন্তরীণ গ্যালারিতে যে দৃশ্যটি থাকবে সেটি পুরো আহমেদাবাদ শহর কে নিয়ে বানানো হবে। যেখানে গ্যালারি টি প্রায় 82 মিটার উঁচুতে অবস্থিত থাকবে।মন্দিরের গর্ভগৃহটি ভারতীয় সংস্কৃতি অনুসারে প্রস্তুত করা থাকবে আর 52 মিটার উচ্চতায় স্থাপন করা হবে মা উমিয়ার মূর্তি। শুধু তাই নয় মন্দিরে বসানো থাকবে একটি শিবলিং ও।

Related Articles

Close