হারিয়ে গেছে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড, চিন্তা নেই! এখন মাত্র 25 টাকার বিনিময়ে ফিরে পাবেন কার্ড, কীভাবে জানতে

পশ্চিমবঙ্গে এখন ভোটের বাজনা বেজেছে। প্রথম দফার ভোটের দিনক্ষণ আসতে আর বাকি মাত্র কয়েকটা দিন। এর মধ্যেই সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলো ভোট প্রচারে নেমে পড়েছেন। ভোটের বাজারে নিজেদের মাটিকে শক্ত করার জন্য সেই লকডাউনের সময় থেকে অনলাইনে সভা করা শুরু করেছিল বিভিন্ন রাজনৈতিক দল। ভোট সামনে আসার জন্য নির্বাচন কমিশনের নিয়ম পশ্চিমবঙ্গে লাগু হয়েছে। ভোটাররা যাতে রাজনৈতিক দলের দ্বারা প্রভাবিত না হয় সেই জন্য এখন সরকারি প্রকল্পের কাজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

 

স্বভাবতই পশ্চিমবঙ্গ সরকারের চোখের আলো প্রকল্প এবং স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের নতুন করে আবেদনের পদ্ধতি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কেউ যদি স্বাস্থ্য সাথী কার্ড হারিয়ে ফেলেন তাহলে ডুপ্লিকেট স্বাস্থ্য সাথী কার্ড পেতে গেলে তাকে 25 টাকা মূল্য খরচ করতে হবে। পুরসভার (Kolkata Municipal Corporation) প্রশাসক মণ্ডলীর সদস্য বিদায়ী মেয়র পারিষদ ইন্দ্রাণী বন্দ্যোপাধ্যায় বুধবার পুরভবনে বক্তৃতা দিতে গিয়ে জানিয়েছেন, “কার্ড হারানোর তথ্য জানিয়ে পুলিশে ডায়েরি করার রসিদ ও ২৫ টাকা জমা দিয়ে বরো অফিসে আবেদন করতে হবে।”

স্বাস্থ্য সাথী কার্ড

কলকাতার ১৬টি বরো অফিস থেকে স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের জন্য আবেদন হওয়ার পর পদ্ধতি চালু করেছিলেন কলকাতা পৌরসভার অফিসাররা। নির্বাচন কমিশনের নিয়ম চালু হবার পরে কলকাতা পুরসভাতেও স্বাস্থ্য সাথী কার্ড বিতরনের শিবির বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এবার স্বাস্থ্য সাথী কার্ড তৈরি করে দেবেন বরো অফিসছর অফিসাররা।

 

প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য ইন্দ্রাণী বলেছেন, ইতিমধ্যেই যারা স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের জন্য ফর্ম পূরণ করেছেন তাঁদের নাম সরকারি নথিতে নথিভুক্ত হয়েছে। তাদের যদি মোবাইলে এসএমএস তবে তাঁরা বরো অফিসে গিয়ে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড পেতে পারেন।

swasthya sathi card

এই প্রকল্পের জন্য অদ্ভুত সাড়া ফেলেছে রাজ্য রাজনীতিতে। বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিংহোম স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর রেট বাড়ানোর জন্য দাবি তুলেছিলেন। সেই দাবি মেনে নিয়ে প্রায় ৬০ শতাংশ প্যাকেজের রেট ১০-১৫ শতাংশ বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন রাজ্য সরকার।