জেনে নিন সমীক্ষার আভাস, কোন কোন রাজ্যে ফুটতে পারে পদ্মফুল…

নিয়েলসনের এক জনমত সমীক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য উঠে এসেছে। এই সমীক্ষাতে দেখা গেছে রাজ্যের সমস্ত আসন গুলির মধ্যে আটটি আসনে বিজেপি জেতার সম্ভাবনা রয়েছে। এখন সবারই প্রশ্ন, কোন কোন আসনে বিজেপি জিততে পারে? সমীক্ষা অনুসারে যে সমস্ত আসনগুলিতে জেতার সম্ভাবনা রয়েছে সে সমস্ত আসন গুলি নিচে আলোচনা করা হলো।১)আলিপুরদুয়ার – এই সমীক্ষাতে বলা হয়েছে আলিপুরদুয়ারে বিজেপি জিততে পারে। আলিপুরদুয়ারে জন বারলা হলেন বিজেপি প্রার্থী। গতবারের বিধানসভা ভোটের পর থেকেই আলিপুরদুয়ারে বিজেপি হাওয়া বেড়েই চলেছে।

২)দার্জিলিং – দার্জিলিঙে বিজেপির প্রার্থী হয়েছেন রাজু বিস্ত।মোর্চা এবং জেএনএলএফ এর জোট রাজু বেস্তকে বিজেপি প্রার্থী করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দার্জিলিঙে জোট থাকার ফলে এখানকার আসল শাসক দলের হাতে যেতে পারে বলে দেখা গিয়েছে সমীক্ষাতে।
৩)রায়গঞ্জ – রায়গঞ্জের সিপিএম প্রার্থী মহম্মদ সেলিম এবং কংগ্রেস প্রার্থী দীপা দাশমুন্সির লড়াই এর ফলে মাঝখানে বিজেপি জিতে যেতে পারে বলে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে এই জনমত সমীক্ষাতে ।
৪)বালুরঘাট – বালুরঘাটের আসনটিও বিজেপির দখলে যেতে পারে বলে নিয়েলসনের এই জনমত সমীক্ষায় বলা হয়েছে। বাংলায় বিজেপির সমস্ত ইতিবাচক আসন গুলির মধ্যে এটি অন্যতম।
৫)কৃষ্ণনগর –
কৃষ্ণনগরে আসন বিজেপির পক্ষে যেতে পারে বলে মনে করেছে নিয়েলসনের এই সমীক্ষা। কৃষ্ণনগরের আসনটি নিয়ে আপাতত স্বস্তিতে রয়েছে বিজেপি।
৬)বনগাঁ – বাকি আসনগুলির মতো এ আসনটিতে ইতিবাচক ইঙ্গিত বিজেপির পক্ষে। ঠাকুরবাড়ির লড়াইয়ে বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুর জিতে যেতে পারে।
৭)বারাকপুরে – ব্যারাকপুরে বিজেপি প্রার্থী হলেন অর্জুন সিং। তিনি সদ্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। তিনি 23 শে মে আসন হোলি খেলবেন বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিরোধী দলকে। সমীক্ষাতে দেখা গেছে অর্জুনের এই প্রতিশ্রুতি সফল হতে পারে।

৮)আসানসোল – আসানসোলে বিজেপি প্রার্থী হলেন বাবুল সুপ্রিয়। আর আসানসোলে বিজেপি আসনটি ধরে রাখতে পারবে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন এই সমীক্ষা।