জাতীয় স্তরে এখন চর্চার বিষয় আমরাই, দেখুন সংবাদ মাধ্যমের সাক্ষাৎকারে আর কী কী বললেন তৃণমূল প্রার্থী নুসরত!

সিলভার স্ক্রিন থেকে রাজনীতির ময়দানে নামলেন টলিউড অভিনেত্রী নুসরত। প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে রাজনৈতিক মহল থেকে শুরু করে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাকে নিয়ে কটাক্ষ করা শুরু হয়ে যায়। রবিবার জী 24 ঘন্টা স্টুডিওতে হাজির ছিলেন বসিরহাটের তৃণমূল প্রার্থী নুসরত। নানান প্রশ্নের মুখোমুখি হন নুসরত। তিনি সমস্ত প্রশ্নের জবাব দেন দক্ষ রাজনীতিবিদদের মতন। তৃণমূল প্রার্থী কে করা প্রশ্ন এবং তার উত্তরগুলি হল – স্টারডম হারানোর ভয় নেই? নুসরত : মানুষের ভালবাসা এবং আশীর্বাদে পেয়েছি আমি। তাদের জনপ্রিয়তার কারণে আমাকে প্রার্থী হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে তৃণমূলের তরফ থেকে। পর্দার ওপারে আমাকে অনেকেই দেখেছেন। এবার সিলভার স্ক্রীন ছেড়ে মানুষের কাছে পৌঁছানোর সুযোগ পেয়েছি।

নায়িকার জনপ্রিয়তা?
নুসরত : রাজনৈতিক নুসরত এর কাছে তো একটা অন্যরকম প্রত্যাশা থাকবে। আমার মধ্যে যোগ্যতা আছে বলেই দিদি আমাকে প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেছেন। জানি এটা একটা বিশাল বড় দায়িত্ব তবুও উনি কোথাও আমাকে যোগ্য মনে করেছেন বলেই প্রার্থী হিসেবে বেছে নিয়েছেন। আমরা অভিনয় করি তাই অন্য মানুষদের যে আমরা বেশি আবেগপ্রবণ। তাই আর পাঁচটা মানুষের সঙ্গে নিজেকে মেলাতে পারবো।
প্রত্যাশা পূরণ করতে পারবেন?
নুসরত : বসিরহাটে আমি 4 টে শো করেছি। শো করতে গিয়ে দেখেছি মানুষের ভালোবাসা রয়েছে। তাদের ভালো করার আমি 100% চেষ্টা করব।
কীভাবে সংসদে বক্তব্য রাখবেন?
নুসরত :  এখন কিভাবে মানুষের কাছে পৌঁছানো যাবে সেটা ভাবছি। মানুষের ভাবনা চিন্তার পরিবর্তন আনতে হবে।
দুটি জাতীয় ইস্যু কী?
নুসরত :  জাতীয় স্তরে এখন চর্চার বিষয় আমরাই। আমাদের নিয়ে নানান মিম ও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা হচ্ছে। জাতীয় স্তরে আমরা পরিচিতি পেয়েছি। এই সমস্ত ট্রল আমরা গায়ে না মাখলেও এর বিপরীত প্রতিক্রিয়া তো থাকবেই।
কটুক্তি ও অশ্লীল ব্যঙ্গ?
নুসরত : আমরা মহিলা বলে আমাদের সাথে এরকম টা করা হচ্ছে।তাই এসব নিয়ে আমি এত ভাবি না।ছোটবেলা থেকে আমরা বিতর্কে আছি। লোকে কি লিখছে বলছে তা সমস্ত কিছু মাথায় ঢুকিয়ে নিলে বাঁচতে পারা যাবে না।

নতুন লড়াই কেমন?
মানসিক লড়াইয়ের সাথে সাথে আরও একটি লড়াই আছে। আমার বাবা যদি দু টাকা রোজগার করে তাহলে সাধারণ মানুষের জন্য এক টাকা দান করে দেয়। এমনকি আমার আয়েরও একটা অংশ দান করে দিই। আমার স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা রয়েছে কিন্তু তা মিডিয়াকে জানায় না। সামাজিক কাজ করা আমার রক্তে রয়েছে। আমি ভীষন গর্ব বোধ করছি। মা বলেন, মানুষের ভালো করতে গিয়ে খামতি জানো না থাকে।
কবে জানলেন?
নুসরত :  আজ থেকে প্রায় ছয় মাস আগে দিদির কাছ থেকে একটা সংকেত পেয়েছিলাম, কিন্তু আমি এটা ভুলে গিয়েছিলাম। ঘোষণা করা দু-তিন দিন আগে থেকে  সাংবাদিকদের মুখে জানতে পারি আমাকে প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে। আমার মনে হয় এটা আমার কাছে ততটা সারপ্রাইজিং ছিল না।
মিমি ও নুসরাত এর মধ্যে কে সেরা?
নুসরত : মানুষের ভালো কাজ করাই হলো মূল বিষয়।  এতে কোনও প্রতিযোগিতা নেই। লোকেরা এসব নিয়ে চর্চা করুক আমি তাতে কোনও কেয়ার করি না। দেবের থেকে পরামর্শ? নুসরত : দেবের সাথে যেদিন দেখা হয়, সেদিন দেবকে বলেছিলাম একদিন দেখা করতেই হবে। তবে ও যেদিন প্রথম বার প্রার্থী হয়েছিল সেদিন বলেছিল, কি হলো বল তো সব ঠিক হবে তো! আজকে ওর জায়গায় দাঁড়িয়ে বুঝতে পারছি এসব এখন আমার মধ্যেও চলছে।

রাজনৈতিক ভাষণ? নুসরত :  সাংসদের শুনেছি অনেক হই হট্টগোল চলে। ওখানেও এন্টারটেইনমেন্ট রয়েছে। লট অফ ফান। এসব কথা এখন ভাবছি না।  তবে দেব ভাষণ দিয়েছে কিন্তু শিল্পীরা ভাষণ দেবেন না।

শুটিং? নুসরত : আপাতত এখন কোন শুটিং নেই। তবে পুজো রিলিজের সম্ভাবনা রয়েছে।

Abhishek

A Patriotic writer, writes on specially trending topics on Indian politics. Graduted in History. Contact: amitra246@gmail.com

Related Articles

Close