আবারও বাড়ল লকডাউনের মেয়াদকাল আগামী 31 মে পর্যন্ত জারি থাকবে লকডাউন, পাশাপাশি নাইট কার্ফুও..

দেশবাসী যেমনটা আন্দাজ করেছিল ঠিক তেমনটাই হলো। এখনো পর্যন্ত তৃতীয় দফার যে লকডাউনটি চলছিল সেটা বাড়িয়ে 31 শে মে পর্যন্ত করল কেন্দ্রীয় সরকার। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে টুইট করে এই ঘোষণা করা হয়। কারণ যত দিন যাচ্ছে ভারতে তত করোনা সংক্রমণ বেড়েই চলেছে তাই সরকার লকডাউন বাড়াতে বাধ্য হয়। তবে এই দফার লকডাউনে থাকছে নাইট কার্ফুও। সন্ধ্যে সাতটা থেকে সকাল সাতটা পর্যন্ত এই কর্ফু চলবে। অর্থাৎ এই সময়ের মধ্যে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাড়ির বাইরে পা রাখতে পারবেন না।

তবে স্থানীয় প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে এই নাইট কার্ফুও যদি ঠিকভাবে পালন না করা হয় তাহলে 188 ধারাও জারি করা হতে পারে। কিন্তু আগের তুলনায় এইবারে আরো কিছু কিছু জিনিস ছাড় দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে এই লকডাউনে কী কু খোলা থাকবে কী কী খোলা থাকবে না। আসুন এবার দেখে নেওয়া যাক কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে কী কী খোলা রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আর কী কী বন্ধ থাকবে —

1. রাজ্যের সীমানার মধ্যে আসা যাওয়ার ক্ষেত্রে কোনো বাধা থাকবে না। দিনের বেলায় রাজ্যের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে যেতে পারবেন সব রাজ্যবাসী।

2. আগে যেমন সমস্ত সরকারি অফিস বন্ধ ছিল তেমনি এবারেও বন্ধ থাকছে।
3. খেলাধুলা এবং শরীরচর্চার সমস্ত কেন্দ্র খোলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কোন দর্শকের প্রবেশ ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়নি।
4. শুধুমাত্র চিকিৎসা সরঞ্জাম এবং বাকি কয়েকটি ক্ষেত্রে ছাড় রয়েছে তাছাড়া দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক উড়ানের ক্ষেত্রে কোনো ছাড় দেওয়া হয়নি।

5. সমস্ত কর্মীদের নিজস্ব সুরক্ষার কথা ভেবে তাদের মোবাইলে আরোগ্য সেতু মোবাইল অ্যাপটি রয়েছে কীনা তা ওই অফিস কর্তৃপক্ষকে দেখতে হবে।
6. সিনেমা হল, শপিংমল, থিয়েটার, সুইমিং, জিম এই সমস্ত কিছু বন্ধ থাকবে আগামী 31 মে পর্যন্ত।
7. 10 বছরের কম যাদের বয়স এবং 60 বছরের বেশি যাদের বয়স এরকম মানুষদের বাড়ির বাইরে বেরোতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে সরকারের তরফ থেকে। এছাড়াও কোন অন্তঃসত্ত্বা মহিলা এবং ডায়াবেটিস বা উচ্চরক্তচাপ আছে এমন কোন ব্যাক্তিরা বাড়ির বাইরে একেবারে বেরোতে পারবেন না।