LIC-র নয়া পেনশন স্কিম, মাত্র একবার প্রিমিয়াম দিয়ে প্রতিমাসে পেয়ে যাবেন ১২,০০০ টাকা প্রিমিয়াম

বর্তমানে সবাই কিছু না কিছু করতে চায়। সরকারি চাকরি হোক বা বেসরকারি চাকরি, যে কোনভাবেই একটি কর্মের সঙ্গে সকলে যুক্ত হতে চায়। আর বর্তমানে থেকেও মানুষ চিন্তা করে তার ভবিষ্যতের। সবাই চায় ভবিষ্যৎ কে সুরক্ষা করতে। কারণ সেই ভবিষ্যৎকালে শরীরের সামর্থ্য থাকে না মানুষের কিছু করার। তাই সামান্য কিছু হলেও মানুষ টাকা-পয়সা জমাতে শুরু করে বর্তমান সময় থেকে ভবিষ্যতের জন্য।

আর এমনই এক সুবর্ণ সুযোগ আনছে LIC (Life Insurance Corporation)। LIC -এর এই বীমা নিজের ভবিষ্যৎ সুরক্ষার জন্য সবচেয়ে ভাল সুযোগ। এই পলিসিতে কেবল মাত্র একবারই প্রিমিয়াম দিতে হবে, আর তার জন্য পেয়ে যাবেন জীবনভর পেনশন। এই বিশেষ পেনশন বীমা টির নাম এলআইসি সরল পেনশন যোজনা (LIC Saral Pension Yojona)। এটি একটি সিঙ্গেল প্রিমিয়াম প্ল্যান। ১লা জুলাই থেকে এই যোজনা চালু হয়েছিল।

এই সরল পেনশন যোজনা দু’ধরনের হয় অর্থাৎ আপনি দুভাবে এই পেনশন নিতে পারবেন। জেনে নেওয়া যাক এই ব্যাপারে বিস্তারিত ভাবে-

Advertisements

১| সিঙ্গেল লাইফ পলিসি- এখানে পলিসি কেবল একজনের নামে হবে। এই পেনশন যোজনা কেবল একজনের সঙ্গে যুক্ত হবে। আর এই পলিসিতে পলিসি হোল্ডার যতদিন বেঁচে থাকবে ততদিন পর্যন্ত পেনশন পাবে। তার মৃত্যুর পরে তার নমিনি, বেস প্রিমিয়াম পাবে।

Advertisements

২| জয়েন্ট লাইফ পলিসি- এই পলিসিতে স্বামী-স্ত্রী দুজনেরই কভারেজ থাকবে। এখানে স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে যে বেশি দিন বেঁচে থাকবে, সে আজীবন পেনশন পাবেন। আর দুই জনের মৃত্যুর পর নমিনি পেয়ে যাবেন বেস প্রিমিয়াম।

সরল পেনশন যোজনার পলিসির সুবিধাগুলি—

১| পলিসি নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পলিসি হোল্ডারের পেনশন শুরু হয়ে যাবে ।

২| এই পেনশন পাওয়ার সময়সীমা আপনি নিজেই নির্ধারণ করতে পারবেন অর্থাৎ ত্রৈমাসিক, ছয়- মাসিক না বার্ষিক ভাবে পেতে চান এই পেনশন তা আপনার উপরে নির্ভর করবে।

৩| এই পেনশন পলিসিতে আপনি অনলাইন ও অফলাইন দুইভাবেই প্রীমিয়ামের টাকা জমা করতে পারবেন।

৪| এই যোজনায় ন্যূনতম ১২ হাজার টাকা বছরে ইনভেস্ট করতে হবে। তবে টাকা জমা করার সর্বাধিক কোন সীমা নেই।

৫| ৪০ থেকে ৮০ বছর পর্যন্ত বয়সের মানুষজন এই যোজনায় টাকা ইনভেস্ট করতে পারবে।

৬| পলিসি শুরু হওয়ার ছয় মাসের মধ্যেই পলিসি হোল্ডার যেকোনো সময় লোন নিতে পারবে।