LIC- এর দুর্দান্ত স্কিমে বাজিমাত, মাত্র ২০০ টাকা বিনিয়োগ করে এখন পেয়ে যাবেন ২৮ লক্ষ টাকা

সম্প্রতি এলআইসির (LIC) নতুন স্কিমে টাকা রেখে লাভবান হতে পারেন গ্রাহকেরা।বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিনিয়োগ করে চারিদিকে বিভিন্ন রকম প্রতারণার ফাঁদে পড়ে থাকেন গ্রাহকেরা। সুতরাং নিজেদের টাকা কীভাবে সুরক্ষিত স্থানে বিনিয়োগ করা যায় তার জন্য অনেকেই দুশ্চিন্তায় থাকেন।তবে এলআইসি হল একটি সুরক্ষিত বিনিয়োগের ক্ষেত্র। সুতরাং গ্রাহকদের আর্থিক সুরক্ষার সাথে সাথে সুনিশ্চিত ভবিষ্যতের জন্য এলআইসির এই নতুন স্কিমে নিশ্চিন্তে বিনিয়োগ করতে পারেন গ্রাহকেরা।

সম্প্রতি জীবন বিমা কর্পোরেশনের এই স্কিম গ্রাহকদের টাকা সুরক্ষিত রাখার সাথে সাথে দিচ্ছে ‘লাইফ কভার’। এই নতুন পলিসিতে বিনিয়োগকারীর হঠাৎ মৃত্যু ঘটলে নমিনি পেয়ে যাবেন ‘লাইফ কভারেজ’।এলআইসি নতুন স্কিমে গ্রাহকরা প্রতিদিন ২০০টাকা করে দিয়ে ২৮ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পেতে পারেন। এই নতুন স্কিম গ্রাহকদের দিচ্ছে ‘লাইফ কভার’ সুবিধা নতুন এই স্বীকৃত পলিসিটির নাম ‘জীবন প্রগতি প্ল্যান’।

এই নতুন প্ল্যানে পলিসি অনুযায়ী প্রত্যেক গ্রাহকে সময়ে সময়ে প্রিমিয়াম জমা দিতে হবে। কোন দুর্ঘটনাবশত আমানতকারীর মৃত্যু ঘটলে লাইফ কভারেজ পাবে পরিবার । এছাড়া আরও জানানো হচ্ছে প্রতি পাঁচ বছর অন্তর বৃদ্ধি পাবে এই লাইফ কভারেজ এর টাকা। তবে পলিসি যতদিন সক্রিয় থাকবে ততদিন এই টাকার পরিমাণ নির্ভর করবে। এই পলিসির মেয়াদ শেষ হওয়ার সাথে সাথে আমানতকারী একটি মোটা টাকা পাবেন প্রকৃতপক্ষে এটি হলো এলআইসির একটি লিঙ্কড সেভিংস প্ল্যান।

Advertisements

আমানতকারীদের সুরক্ষিত আর্থিক বিনিয়োগের ক্ষেত্র এই পলিসিতে যে কোন পলিসি হোল্ডার ২৮ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পেতে পারবেন। একজন পলিসি হোল্ডারের প্রতিমাসে ৬০০০ টাকা প্রিমিয়াম জমা দিতে হবে। অর্থাৎ ৩০ দিনে ৬০০০টাকা দিতে হলে হিসাবমতো প্রতিদিন ২০০ টাকা করে জমা দিলেই আমানতকারী ২৮লক্ষ টাকা পেতে পারবেন। অবরোধকারীর মৃত্যু ঘটলে সেক্ষেত্রে নমিনি পেয়ে যাবেন ১০০ শতাংশ বেসিক সাম অ্যাসিওরেড টাকা।

Advertisements

পলিসি শুরু হওয়ার ৫ বছরের মধ্যে আমানতকারীর মৃত্যু হলে তবেই নমিনি টাকা পেয়ে যাবেন এবং আমানতকারীর যদি ১৬ থেকে ২০ বছরের মধ্যে মৃত্যু ঘটে সে ক্ষেত্রে নমিনি পেয়ে যাবেন ২০০ শতাংশ বেসিক সাম অ্যাসিওরেড টাকা। তবে এই পলিসিতে টাকা জমা দেবার ক্ষেত্রে একটি নির্দিষ্ট বয়সের সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়েছে । একজন ব্যক্তির বয়স ৪৫বছরের উর্ধ্বে হলে এই পলিসিতে তিনি টাকা জমা করতে পারবেন না। ১২ বছর বয়সের পর থেকেই এই পলিসিতে বিনিয়োগ করা যাবে। সর্বোচ্চ ২০ বছর পর্যন্ত এই স্কিমে টাকা জমা করা যাবে। অন্ততপক্ষে ১২বছর আমানতকারী কে প্রিমিয়াম জমা দিলে তবেই এই স্কিম থেকে সমস্ত রকম সুবিধা আমানতকারী পাবেন।