Skip to content

ঘুচে যাক বলিউড-টলিউড তকমা, সিনেমা হোক এবার সর্বভারতীয়! জানালেন অভিনেতা রামচরণ

গত বছর দক্ষিণ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির জয়যাত্রা যখন শুরু হয়েছিল, তখনকার সময়ের একটি বিখ্যাত সিনেমা “আর আর আর”(RRR)। বাহুবলি পরিচালক এস এস রাজা মৌলি (SS Rajamouli) দর্শকদের দিয়েছিলেন একটি দারুন উপহার সিনেমার মোড়কে ভরে। ভারতীয় বক্স অফিসে ব্লকবাস্টার হিট এবং সারা বিশ্বে ১ হাজার কোটি টাকার ব্যবসা করেছিল এই সিনেমাটি। এই সিনেমাতে অভিনয় করেছিলেন রামচরণ তেজা, জুনিয়র এনটিআর এবং আলিয়া ভাট।

আর কিছুদিনের মধ্যেই এই সিনেমার সিকুয়েল আনতে চলেছেন পরিচালক। এখন যদিও সবকিছু প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে, কিন্তু এই সিনেমা নিয়ে এখনই দর্শকদের মধ্যেই উত্তেজনা তুঙ্গে। আজ সিনেমার অন্যতম নায়ক রামচরণকে নিয়ে কিছু না জানা কথা শেয়ার করব আপনাদের সঙ্গে। ২০১৩ সালে “জঞ্জির” সিনেমার হাত ধরে বলিউডে প্রবেশ করেছিলেন এই দক্ষিণ অভিনেতা। কিন্তু রামচরণ এবং প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মত প্রথম সারির তারকাদের নিয়ে তৈরি করা হলেও এই ছবি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়ে। এরপর আর কোন হিন্দি সিনেমাতে অভিনয় করেননি অভিনেতা রামচরণ।

তাহলে কি এতদিন সচেতন ভাবে নিজেকে বলিউড থেকে দূরে সরিয়ে রেখেছিলেন তিনি? প্রশ্নের উত্তরে এক ইন্টারভিউতে অভিনেতা বলেন, সঠিক সিনেমা বাছাই করা খুব জরুরী। ভালো সুযোগ গেলে নিশ্চয়ই কাজ করবেন তিনি। সিনেমা একটি শিল্প। একটি সিনেমা সর্বভারতীয় ভাবে তৈরি করা হয়।

তবে সম্প্রতি সাক্ষাৎকারে এই প্রসঙ্গে আরো একটি বড় বয়ান দিয়েছিলেন তিনি। তিনি বলেছিলেন, এবার সময় এসেছে একটি সিনেমাকে বলিউড বা টলিউড তকমা থেকে মুক্তি দেওয়ার। সমস্ত সহকর্মীকে এই বিষয়ে এগিয়ে আসতে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। দেশে শুধুমাত্র একটি ইন্ডাস্ট্রি থাকা উচিত এবং সেটি হল ভারতীয় ইন্ডাস্ট্রি। কোন বিভেদ যেন তৈরি না হয় বিনোদনের ক্ষেত্রে এমনটাই মনে করেন অভিনেতা রামচরণ।

আঞ্চলিক চলচ্চিত্রের হিন্দি রিমেকের প্রবণতা সম্পর্কে তিনি বলেন, এই মডেলটি আর বেশি দিন চলবে না। দর্শকরা একবার যখন ডিজিটাল platform – এ অরিজিনাল দেখে ফেলেন তখন আর রিমেকের দিকে আকর্ষণ তৈরি হয় না।