প্রয়াত হলেন তাপস পাল, শোকস্তব্ধ গোটা বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি…

মারা গেলেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেতা তাপস পাল। মঙ্গলবার দিন ভোর রাতেই জীবনাবাস ঘটে এই তারকার, মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন তিনি।অভিনয়ের পাশাপাশি এই তারকা 2009 সালে ভারতীয় সাধারণ নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে টিকিট নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি কৃষ্ণনগর থেকে এমপির পদে নিযুক্ত ছিলেন। তবে তার জীবনের ব্রেক লাগে 2016 সালের শেষের দিকে যখন রোজভেলি নামক একটি চিটফান্ড এর সাথে যুক্ত থাকার অভিযোগে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল 61 বছর। এই অভিনেতার ছোটবেলা থেকেই ছিল অভিনয়ের প্রতি ঝোঁক যার দরুন তিনি তাহার জীবনে প্রথম ছবি দাদার কীর্তিতে অভিনয় করেন। যদিও এই ছবিতে বিশেষ কিছু ছাপ ধরতে না পারলেও তার পরবর্তী ছবি গুরুদক্ষিণা ছবির জন্য তাকে আজীবন মনে রাখবে বাংলার দর্শক মহল।এই ছবির মাধ্যমে তিনি দর্শকদের মনে জায়গা করে নিতে পেরেছিলেন ছবিতে অসাধারণ অভিনয়ের সাথে কালি বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে তার যুগল রীতিমতো কাদিয়েছিল দর্শকদেরকে।

তিনি অনেক বাংলা ছবিতে অভিনয় করেছিলেন যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল মায়া-মমতা,সুরের ভুবনে, সমাপ্তি, চোখের আলো, অন্তরঙ্গ সাহেব ইত্যাদি। তার বিখ্যাত ছবি সাহেবের জন্য তিনি 1981 সালে ফিল্মফেয়ার অ্যাওয়ার্ডে মননিত হন। শুধু তাই নয় বাংলা ছাড়াও তিনি বলিউডের ছবিতেও অভিনয় করেছেন। তিনি মাধুরী দীক্ষিতের সাথে অবোধ ছবিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন।

তবে যাই হোক 2009 সালের পর থেকে তিনি আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়েন। তারপর চিটফান্ড কাণ্ডে তাপস পালের নাম জড়ানো রীতিমতো বিস্ফোরণ ঘটানো অভিনেত্রী নন্দিনী পাল যদিও দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর শেষ পর্যন্ত ভুবনেশ্বর থেকে মুক্তি পান তাপস পাল আর তারপর থেকেই তিনি ক্রমশ রাজনীতি থেকে দূরে সরে দাঁড়ান।

Related Articles

Close