স্বপ্ন ছিল ক্রিকেটার হওয়ার, কিন্তু ভাগ্যে লেখা ছিল অন্য কিছু, আজ ৯৬ হাজার কোটি টাকার মালিক

বিলিয়নিয়ার ব্যবসায়ী কুমার মঙ্গলম বিড়লা হলেন আদিত্য বিড়লা গ্রুপের চেয়ারম্যান। এই গ্রুপটি ভারতের তৃতীয় বৃহত্তম ব্যবসায়িক গোষ্ঠী। কুমার মঙ্গলম বিড়লা পরিবারের চতুর্থ প্রজন্মের সদস্য। কুমার মঙ্গলম, মুম্বাইয়ের সিডেনহ্যাম কলেজ অফ কমার্স অ্যান্ড ইকোনমিক্স থেকে প্রাথমিক পড়াশোনা করেন। তারপরে তিনি মুম্বাই বিশ্ববিদ্যালয়ের এইচআর কলেজ অফ কমার্স অ্যান্ড ইকোনমিক্স থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেন।

এরপর তিনি এমবিএ করতে লন্ডনে যান। তিনি একজন চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টও ছিলেন। বাবার কথা রাখতেই তিনি সিএ পড়েন। কুমার মঙ্গলম ১৯৮৯ সালে ২২ বছর বয়সে ব্যবসায়ী শম্ভু কাসলিওয়ালের মেয়ে নীরজাকে বিয়ে করেছিলেন। কুমার মঙ্গলম এবং নীরজার তিনটি সন্তান যথাক্রমে আর্যমান বিক্রম, অনন্যা এবং অদ্বৈতেশা। কুমার মঙ্গলমের স্ত্রী হলেন আদিত্য বিড়লা ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারপার্সন।

কুমার মঙ্গলমের বাবা আদিত্য বিড়লার মৃত্যুর পর কুমার মঙ্গলমকে ২৮ বছর বয়সে ১৯৯৫ সালে বিড়লা গ্রুপের দায়িত্ব নিতে হয়েছিল। এত অল্প বয়সে এত বড় বিড়লা গোষ্ঠী চালানোর ক্ষমতা নিয়ে তখন অনেকেই প্রশ্ন তুলেছিলেন, কিন্তু কুমার মঙ্গলম তাঁর কঠোর পরিশ্রম ও যোগ্যতার জোরে প্রমাণ করেন যে, সাফল্যের কোনো বয়স নেই। ১৯৯৫ সাল থেকে এখনো পর্যন্ত কুমার মঙ্গলম বিশ্বের ৪২টি দেশে তাঁর ব্যবসা ছড়িয়ে দিয়েছেন।

কুমার মঙ্গলমের টার্নওভার ১৬.৫ বিলিয়ন ডলারের বেশি। কুমার মঙ্গলম বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে ১০৬ নম্বরে রয়েছেন। কুমার মঙ্গলম বিড়লার মোট সম্পত্তি বছরের পর বছর ধরে দ্রুতগতিতে বেড়েছে। কুমার মঙ্গলম বিড়লার আয় অ্যালুমিনিয়াম, সিমেন্ট এবং আর্থিক পরিষেবা থেকে হয়৷