আবারো রাজ্যজুড়ে জাকিয়ে পড়তে চলেছে শীত, ফের নামতে চলেছে তাপমাত্রার পারদ…

ফের রাজ্যজুড়ে জাঁকিয়ে পড়তে চলেছে আবার শীত।শীত বিদায়ের আগে বেশ কাঁপিয়ে দিচ্ছে এবছর। কারণ এর আগে আবহাওয়া দপ্তর এর তরফ থেকে জানানো হয়েছিল শীতের আয়ু অবশ্য বেশ ছোট হবে তবে বুধবার ও বৃহস্পতিবার দিন বৃষ্টির সম্ভাবনা দেখেছিল আবহাওয়া অফিস আর এখন রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে শুরু হয়ে গেছে বৃষ্টি। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে আপাতত দিনদুয়েক আকাশ মেঘলা থাকার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আর তারপর শনিবার দিন আবহাওয়া পরিষ্কার হয়ে রোদ উঠলেই ফের জাঁকিয়ে পড়ছে চলছে রাজ্যজুড়ে শীত। আজ সকালে চারিদিকে ঘন কুয়াশায় মুড়েছিল কলকাতা সহ অন্যান্য রাজ্যগুলি।যেখানে কলকাতার তাপমাত্রা আজ 17 ডিগ্রী তে গিয়ে পৌঁছেছে। অবশ্য যা স্বাভাবিকের তুলনায় অনেকখানি বেশি রয়েছে তবে সরস্বতী পুজোর প্রথম দিন ঠাকুর দেখতে গিয়ে জল-কাদার সঙ্গী হতে হয়েছে এই রাজ্যের লোকেদের আজ বৃহস্পতিবার দিন কোলকাতায় বৃষ্টির সম্ভাবনা অনেকখানি কমে গেছে।

তবে এক্ষেত্রে কলকাতায় বৃষ্টির সম্ভাবনা কম হলেও দক্ষিণবঙ্গের পূর্বঅঞ্চল গুলিতে বিভিন্ন জেলায় পশ্চিমী ঝঞ্জা জেরে বৃহস্পতিবার সারাদিন আকাশ মেঘলা থাকবে আবার কোথাও কোথাও ছিটেফোঁটা বৃষ্টি হবার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে আকাশ মেঘলা থাকার কারণেই ঠান্ডা বিশেষ থাকবে না।পরে শনিবার দিন আকাশ পরিষ্কার হয়ে যাওয়ার পর আকাশ ঝলমলের সঙ্গে পাল্লা দিতে নেমে যাবে শীতের পারদ ও।হাওড়া আবহাওয়া দপ্তর এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা 17 থেকে 18 ডিগ্রির মধ্যে ঘোরাফেরা করবে, যেখানে বুধবার দিন কলকাতা সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল 18.6 ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড।

আর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল 24.5 ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড। আর এরকমই তাপমাত্রা এখন থাকার আশংকা রয়েছে। তবে বৃষ্টি থামলে শীতের দাপট আবার দেখা যেতে পারে কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় এমনটাই জানানো হয়েছে আবহাওয়া দপ্তর থেকে আগামী 31 জানুয়ারি থেকে ফের শুষ্ক আবহাওয়া দেখা যেতে পারে এমনটাই আশঙ্কা করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার দিন মূলত বৃষ্টি হতে চলেছে বাংলাদেশে যার জেরে বাংলাদেশের লাগোয়া পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলা যেমন নদিয়া,মুর্শিদাবাদ এবং দুই 24 পরগনায়, উত্তর 24 পরগনায় ও দক্ষিণ 24 পরগনায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

অন্যদিকে 31 শে জানুয়ারি দার্জিলিং ও কালিম্পং এ বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে আবহাওয়া দপ্তর এর তরফ থেকে।তবে 1 ফেব্রুয়ারি পর থেকেই আবহাওয়ার উন্নতি হবে বলে মত প্রকাশ করেছেন আবহাওয়াবিদ মহল।