আপনি কী জানেন স্মার্টফোনকে বাংলায় কী বলে? ৯৯% বাঙালিই উত্তর দিতে ব্যর্থ

আমরা বাঙালি হলেও এতটাই ইংরেজি কথার সঙ্গে নিজেদের ওতপ্রোতভাবে যুক্ত করে ফেলেছি যে অনেক ইংরেজি কথা সঠিক বাংলা অর্থ আমরা বলতে পারব না। যেমন ধরুন হঠাৎ করে যদি বলা হয় এসি অথবা ওয়াশিং মেশিনের বাংলা মানে বলুন তো, দেখবেন চট করে মাথায় আসছে না। তেমনই একটি ইংরেজী শব্দ হলেও স্মার্টফোন। এই স্মার্টফোন আমাদের জীবনের একটি অপরিহার্য অঙ্গ।

এই স্মার্ট ফোন ছাড়া যতই আমরা অচল হয়ে পড়ি না কেন এই স্মার্টফোনের বাংলা কথা কিন্তু আমরা কেউ জানি না। তার আগে এই স্মার্টফোনের উৎপত্তি সম্পর্কে কিছু কথা চলুন জেনে নেওয়া যাক। অ্যাপেল কোম্পানির সিইও স্টিভ জবস প্রথম আমাদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয় এই অত্যাধুনিক যন্ত্রের। তারপর থেকে শুরু হয় সেই যাত্রা যা আজও স্বগর্বে বর্তমান।

মোবাইল এখন শুধুমাত্র একটি ডিভাইসের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই, এটি আমাদের দৈনন্দিন জীবনের একটি অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। মোবাইল ছাড়া এখন আর আমাদের দিন চলে না। প্রথম স্মার্ট ফোন প্রচলন করে অ্যাপেল কোম্পানি। আজ সময়ের সাথে সাথে সেই স্মার্টফোন আরো উন্নত হয়েছে। এ তো গেল স্মার্টফোনের কথা এবার জেনে নিই মোবাইল নামক বস্তুটির উৎপত্তি হয়েছিল কোথায়।

মোবাইল ফোন এসেছে শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে। মটোরোলা নামক একটি কোম্পানির গবেষক মার্কিন কুপার প্রথম তারবিহীন ফোনের নকশা করেছিলেন। প্রথমে টাচ স্কিন ছিল না, বোতাম টিপে কাজ চালাতে হতো। প্রথম টাচ স্কিন নিয়ে আসে অ্যাপেল কোম্পানির iphone। এরপর ধীরে ধীরে আরো গবেষণা করে আজ আরও উন্নত হয়েছে স্মার্টফোন।

মোবাইলের ইতিহাস শোনানোর পর এবার আমরা বলবো মোবাইল ফোনের বাংলা প্রতিশব্দ কি। মোবাইল ফোনের বাংলা প্রতিশব্দ হলো চলভাষ যন্ত্র। তবে আজ শুধুমাত্র মোবাইল ফোনের বাংলা প্রতিশব্দ বলেই আমরা কিন্তু ক্ষান্ত হচ্ছি না, আরো কয়েকটি বাংলা প্রতিশব্দ আজ জেনে নেব আমরা।

১) বাইসাইকেল কথাটির বাংলা প্রতিশব্দ হলো দ্বিচক্রযান।

২) টেলিভিশন কথাটির বাংলা প্রতিশব্দ হলো দূরদর্শন।

৩) রেডিও কথাটির বাংলা প্রতিশব্দ হলো বেতার যন্ত্র।

৪) এসএমএস কথাটির বাংলা প্রতিশব্দ হলো লিখিত বার্তা।

৫) টেলিফোন কথাটির বাংলা শব্দ হলো দুরাভাষ।

৬) ইন্টারনেট কথাটির বাংলা প্রতিশব্দ হলো অন্তর্জাল।