চাকরিতে সম্পূর্ণ হতো না একাধিক শখ, শুরু করেন নিজের ব্যবসা! আজ ২২ হাজার কোটি টাকার কোম্পানির মালিক

পৃথিবীতে এমন অনেক মানুষ আছেন, যারা তাদের পরিশ্রমের ভিত্তিতে চাকরি ছেড়ে নিজেদের বড় ব্যবসা শুরু করেন। তারা কঠোর পরিশ্রম করেন, তবে ফলাফল নিয়ে চিন্তা করেন না। অনেকে পড়াশোনা করেন শুধু ভালো চাকরি পাওয়ার জন্য, কিন্তু অনেক সময় চাকরি করেও মানুষ সন্তুষ্ট হন না। আজ আমরা এমনই এক ব্যক্তির গল্প বলতে চলেছি, যিনি চাকরি নিয়ে মোটেও খুশি ছিলেন না।

এই কারণেই তিনি ব্যবসা শুরু করেছিলেন এবং আজ তিনি ২২ হাজার কোটি টাকার একটি কোম্পানীর মালিক। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই ব্যক্তির সাফল্যের গল্প। ১৯৮৭ সালে দীপ কারলা, দিল্লির সেন্ট স্টিফেন কলেজ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেন। এরপর তিনি আইআইএম আহমেদাবাদ থেকে বিজনেস ম্যানেজমেন্টে ডিগ্রি সম্পন্ন করেন।

পড়াশুনার পর তিনি ব্যাংকিং খাতে নিজের ভবিষ্যৎ গড়ার কথা ভেবেছিলেন, তাই তিনি এবিএন এএমআরও ব্যাংকেও ৩ বছর চাকরি করেন। এরপর ১৯৯৫ সালে তিনি অনলাইন সার্ভিসের ক্ষেত্রে কাজ করার সিদ্ধান্ত নেন, তাই তিনি চাকরি ছেড়ে দেন। চাকরি ছাড়ার ৪ বছর পর দীপ কারলা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি কোম্পানী এএমএফ বোলিংয়ের সাথে যোগাযোগ করেন এবং ভারতে এএমএফ বোলিং ইঙ্ক স্থাপনের দায়িত্ব নেন।

অন্যদিকে বোলিং অ্যালির পক্ষে ভারতে কাজ করা এবং কাজে বিনিয়োগ করা কিছুটা কঠিন ছিল, তবুও তিনি এই কোম্পানীতে ৪ বছর কাজ করেন, কিন্তু তিনি খুশি ছিলেন না, তাই তিনি চাকরি ছেড়ে দেন। ওয়েবসাইটটির নাম ছিল মেক মাই ট্রিপ, ১৯৯৯ সালে তিনি জেই ক্যাপিটালের সাথে যোগাযোগ করেন এবং ইন্টারনেটের মাধ্যমে ব্যবসা করার পরামর্শ নেন। চাকরি ছাড়ার পর ২০০০ সালে অনলাইনে টিকিট বুকিং সেবা চালু করেন।

এর জন্য তিনি মেক মাই ট্রিপ নামে একটি ওয়েবসাইট চালু করেন। অনলাইন টিকিট বুকিং প্ল্যাটফর্ম এই সংস্থাটি খুব অল্প সময়ের মধ্যে মানুষের মধ্যে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। এই মেক মাই ট্রিপের মাধ্যমে লোকেরা মোবাইল, ল্যাপটপ এবং কম্পিউটার থেকে বাস, ট্রেন এবং বিমানের টিকিট বুক করতে পারেন। প্রথম দিকে এই কোম্পানীর কিছুটা সমস্যা হলেও পরে এই কোম্পানীটি মানুষের মধ্যে খুব জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।