কেন পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের উপর দিয়ে ওড়ে না পাখি, এমনকী বিমানও? কারণ জানলে চমকে উঠবেন আপনিও

১ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে এবারের রথযাত্রা। রথে চেপে মাসির বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন জগন্নাথ বলরাম সুভদ্রা। গত দুই বছরে রথযাত্রা উৎসবের আনন্দে ভাটা পড়লেও এই বছর মানুষ আনন্দে গা ভাসিয়ে দিয়েছেন। ভারতবর্ষের মধ্যে পুরীর জগন্নাথ মন্দির সবথেকে বৃহত্তম মন্দির এবং পুরীর রথযাত্রা সবথেকে বৃহত্তম রথযাত্রা বলে গণ্য করা হয়। কিন্তু আপনি কি জানেন পুরীর মন্দিরের উপরে কোন পাখি বা বিমান কেন উড়ে যায় না?

কেন জগন্নাথ মন্দিরের উপর দিয়ে পাখি উড়ে যায় না কারণ খতিয়ে দেখতে গিয়ে বিশেষজ্ঞদের মধ্যে একাংশ দাবী করেছেন, ওড়িশার সমুদ্র নিকটবর্তী এলাকায় এই মন্দিরটি অবস্থিত বলে বাতাসের গতিবেগ অত্যন্ত বেশি থাকে এখানে। বাতাসের গতিবেগ বেশি থাকার কারণে যেকোনো পাখির পক্ষেই ওরা একপ্রকার অসম্ভব তাই পুরীর মন্দিরের উপরে কোন পাখি উড়তে দেখা যায় না।

পুরীর মন্দিরের উপরে পাখি ছাড়াও উড়তে দেখা যায় না কোন বিমানকেই কারণ এই মন্দিরের উপরে কোন বিমান রুট নেই। এছাড়াও জগন্নাথ মন্দিরের উপরে থাকা নীলচক্র এর অন্যতম কারণ। পুরী জগন্নাথ মন্দিরের উপরে যে চক্র থাকে সেই চক্র থাকার ফলে যে কোন ওয়ারলেস যোগাযোগ বন্ধ থাকে ওই এলাকায়। সে ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট এলাকায় বিমান চলাচল করলে যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত করা কোনভাবেই সম্ভব নয় তাই বিমান যোগাযোগ নেই ওই এলাকায়।উল্লেখ্য, পুরী ছাড়াও ভারতবর্ষের বিভিন্ন এলাকায় রথযাত্রা উৎসব পালন করা হয়েছে ধুমধাম করে। গত দুই বছরের সমস্ত দুঃখ গ্লানি ভুলে সকলে মেতে উঠেছে উৎসবে।