২০২২ কে নিয়ে করা ৬ টি ভবিষ্যৎবাণীর মধ্যে ২ টি হয়েছে সত্য, ভারতের সম্পর্কে কতটা সত্যি বাবা ভেঙ্গার ভবিষ্যৎবাণী…

বুলগেরিয়ার একজন অন্ধ মহিলা ছিলেন বাবা ভাঙ্গা। ১২ বছর আগে নিজের দৃষ্টি শক্তি হারিয়েছিলেন তিনি। সকলের বিশ্বাস, এই মহিলা অনেক আগে থেকেই ভবিষ্যৎ দেখতে পেতেন। ঈশ্বরের তরফ থেকে এমন একটি ঐশ্বরিক শক্তি তিনি অর্জন করেছিলেন, যার ফলে তিনি আগে থেকে দেখতে পেতেন পৃথিবীর সমস্ত ভবিষ্যৎ। বাবা ভাঙ্গার ভবিষ্যৎবাণী অনেকাংশে সত্য বলে প্রমাণিত হয়েছে। এর আগেও মহামারী সম্পর্কে তিনি যে ভবিষ্যদ্বানী করেছিলেন তা অক্ষরে অক্ষরে মিলে গেছে।

বাবা ভাঙ্গার মৃত্যু হয়েছিল ১৯৯৬ সালে। তাঁর মৃত্যুর আগে তিনি বিশ্বের জন্য ৫০৭৯টি ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন। এই ভবিষ্যত বাণীর মধ্যে ছিল বৃটেনের রাজকুমারী ডায়ানার মৃত্যু, আমেরিকার ৯/১১ হামলা, বারাক ওবামার আমেরিকার প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হওয়া।

এছাড়াও ভারত এবং চীন নিয়ে তিনি ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন যেটি কতখানি সত্য তা আমরা সকলেই জানি। ২০২২ সালের প্রথম মাস সম্পর্কে তিনি দুটি ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন যা সত্য বলে প্রমাণিত হতে চলেছে। ২০২২ সালের ভারত নিয়েও তিনি একটি বিপদজনক ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন, যার ফলে সকলের মনে তৈরি হয়েছে আশঙ্কা। চলুন বাবা ভাঙ্গার এই ভবিষ্যৎবাণী সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

ব্রিটিশ ওয়েবসাইট দ্যা সান- এর রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০২২ সালে যে দুটি বিষয় নিয়ে বাবা ভাঙ্গা ভবিষ্যৎবাণী করেছিলেন তার মধ্যে প্রথমটি হল, অস্ট্রেলিয়ার বেশ কিছু অংশে ভয়াবহ বন্যার পূর্বাভাস। দ্বিতীয় টি হল বহু শহরে খরা এবং জল সংকটের পূর্বাভাস। প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, ভবিষ্যৎবাণী অনুযায়ী চলতি বছরের শুরুর দিক থেকেই অস্ট্রেলিয়ার পূর্ব উপকূলে প্রবল বৃষ্টি শুরু হয়েছে যার ফলে ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। অর্থাৎ প্রথম ভবিষ্যৎবাণী অক্ষরে অক্ষরে মিলে গেছে।

দ্বিতীয় ভবিষ্যৎ বাণী ছিল, বড় বড় শহরগুলিতে খরা এবং জল সংকট হবে। যদিও ভবিষ্যৎ বাণীতে কোন স্থান এবং সময় স্পষ্ট করা ছিল না, তবে মনে করা হচ্ছে এই ভবিষ্যদ্বাণী ইউরোপের বেশ কিছু অঞ্চলের উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়েছিল। ইতিমধ্যেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি এবং পর্তুগাল তীব্র খরার কবলে পড়েছে। সেখানকার মানুষ জনসংকটে ভুগছে।

ভারত সম্পর্কে বর্তমান সময়ে নিয়ে যে ভবিষ্যদ্বানী করেছেন বাবা ভাঙ্গা, সেখানে বলা হয়েছে, চলতি বছরে আরো একবার পঙ্গপালের প্রকোপ বাড়বে। ঝাঁকে ঝাঁকে পঙ্গপাল আক্রমণ করবে ভারতের শস্যক্ষেত্রের উপর। পঙ্গপালের আক্রমণের কারণে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হবে এবং দুর্ভিক্ষ দেখা যাবে। বাবা ভাঙ্গার এই ভবিষ্যৎবাণী কতখানি সত্যি হবে তার সময় বলতে পারবে তবে আপাতত এই ভবিষ্যৎবাণী নিয়ে ভীষণভাবে চিন্তিত ভারতবাসী।