দেশনতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

লকডাউনের মধ্যে ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়ে কেন্দ্রের থেকে বেরিয়ে এলো একটি জরুরি ঘোষণা, ড্রাইভিং লাইসেন্স থাকলে..

করোনা ভাইরাসের জেরে সারাদেশে লকডাউন এখনো অব্যাহত। যত দিন যাচ্ছে আমাদের দেশকে এই করোনা গ্রাস করে যাচ্ছে। লকডাউনের সময় সাধারণ মানুষকে স্বস্তি দেওয়ার জন্য একের পর এক চমকপ্রদক সিদ্ধান্ত নিচ্ছে কেন্দ্র সরকার। ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়ে এবার নতুন নিয়ম ঘোষণা করে দিল কেন্দ্রীয় সরকার। তবে এই নতুন নিয়মে যাদের লাইসেন্স হয়েছে তাদের স্বস্তি দেওয়ার জন্য। কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহনের তরফ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

যাদের ড্রাইভিং লাইসেন্সের রিনিউয়াল করার সময়সীমা পেরিয়ে গেছে কিন্তু করোনার জন্য তারা করাতে পারেননি, তাদের জন্য কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে তাদের ড্রাইভিং লাইসেন্সের বৈধতা 31 শে জুলাই 2020 সাল পর্যন্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যেহেতু কোথাও যানবাহন নিয়ে বেরোলে লাইসেন্স থাকাটা অতি গুরুত্বপূর্ণ তাই কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহনের তরফ থেকে এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহনে তরফ থেকে আরও জানানো হয়েছে, 1 ফেব্রুয়ারি মাসের 2020 সালের পর থেকে যদি কোন ব্যক্তির ডকুমেন্ট ভ্যালিডেশন এর প্রক্রিয়া বাকি থেকে থাকে তাহলে তার জন্য কোন লেট ফি দিতে হবে না ওই ব্যক্তিকে।

কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহনে তরফ থেকে এই নির্দেশিকায় স্পষ্ট ভাবে লিখে দেওয়া হয়েছে, বর্তমানে এই সংকটজনক পরিস্থিতিতে যদি কোন মোটর ভেহিকেল সংক্রান্ত ডকুমেন্ট জমা দেওয়ার কাজ বাকি হয়ে থাকে তাহলে 31 শে জুলাই 2020 সাল পর্যন্ত কোনো লেট ফি বা পেনাল্টি চার্জ দিতে হবে না। যদিও প্রথমে সময়সীমা 30 শে জুন পর্যন্ত করা হয়েছিল কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহনে তরফ থেকে। এবার এই সময়সীমা আরো এক মাস বাড়ানো হল।

এই মন্ত্রকের তরফ থেকে আরও জানানো হয়েছে যে, এই লকডাউনের ফলে যে সমস্ত ব্যক্তিদের লাইসেন্স পুনর্নবীকরন হয়নি সেই সমস্ত ব্যক্তিদের লেট ফি দিতে হচ্ছিল। আবার অনেক সময় টাকা পেমেন্ট করার পরেও লাইসেন্স রিনিউয়াল হচ্ছিল না।

Related Articles

Back to top button