নতুন এরোপনিক প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে জমির পরিবর্তে বাতাসে চাষ হচ্ছে আলু, ফলন বাড়বে ১০ গুণ বেশি

Army এরোপনিক পটেটো ফার্মিংয়ের মাধ্যমে আলু চাষ করা হচ্ছে। এরোপনিক পটেটো ফার্মিং এমন একটি কৌশল, যার মাধ্যমে মাটি ও জমি ছাড়াই আলু চাষ করা যায়। এই কৌশলে মাটি ও জমি উভয়েরই ঘাটতি পূরণ করা যায়।

এরোপনিক প্রযুক্তি হরিয়ানার কারনাল জেলায় অবস্থিত আলু প্রযুক্তি কেন্দ্র দ্বারা উদ্ভাবিত হয়েছে। এই কৌশলটির বিশেষ বিষয় হল, চাষাবাদে মাটি ও জমি উভয়েরই অভাব এই কৌশলে পূরণ করা যায় এবং এই কৌশলে চাষ করলে আলুর ফলন ১০ গুণ পর্যন্ত বেড়ে যায়। এ কৌশলে আলু চাষের অনুমোদন দিয়েছে সরকার এবং এর পাশাপাশি উদ্যানপালন দফতরকে এই কৌশল সম্পর্কে সমস্ত কৃষককে অবহিত করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।


এরোপনিক আলু চাষে কৃষকরা অনেক উপকৃত হবেন, কারণ এর মাধ্যমে কৃষকরা কম খরচে সর্বোচ্চ আলু উৎপাদন করতে পারবেন এবং অধিক ফলনের কারণে তাদের আয়ও বাড়বে। যারা এই কৌশলে বিশেষজ্ঞ তারা বলছেন, এই কৌশলে ঝুলন্ত শিকড়ের মাধ্যমে এতে পুষ্টি দেওয়া হয়। এরপর আর তাতে মাটি জমি লাগে না।


এ কৌশলে আলু বীজের উৎপাদন ক্ষমতা তিন থেকে চার গুণ বাড়ানো হচ্ছে বলে জানা গেছে। এই প্রযুক্তিতে শুধু হরিয়ানার কৃষকরা নয়, অন্যান্য রাজ্যের কৃষকরাও উপকৃত হবে। এভাবে নতুন নতুন প্রযুক্তির আবির্ভাবের ফলে কৃষকদের জ্ঞান অর্জনের পাশাপাশি তাদের আয়ও বাড়ছে, যা তাদের এবং আমাদের দেশের জন্য ভালো।