পশুহত্যা বা পশুকে আঘাত করলেই ভয়ঙ্কর শাস্তি, আসছে নতুন আইন

পশুহত্যা করলে বা পশুকে আঘাত করলে এবার থেকে সর্বাধিক ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা হতে পারে৷ সেইসঙ্গে ৫ বছর পর্যন্ত কারাদন্ডও হতে পারে। পুরনো আইন বদল করে এই নতুন আইন প্রণয়নের কথা ভাবছে কেন্দ্র সরকার ।

এত দিন পর্যন্ত কোনো পশুকে অত্যাচার করলে বা পশু হত্যা করলে ৫০ টাকা জরিমানা দিয়েই ছাড় পাওয়া যেত। ৫০ টাকা জরিমানাও যে সবক্ষেত্রে হত তেমনটা নয়৷ ৬০ বছরের পুরনো এই আইন এবার সংশোধন করা  হতে চলেছে। পশুদের উপর অত্যাচার প্রতিরোধ আইনে এবার বদল আনতে চায় কেন্দ্র সরকার।

নতুন আইনের প্রস্তাবনায় হিংসার ৩ ধরনের মাত্রার উল্লেখ করা হয়েছে৷  স্বল্প আঘাত, দ্বিতীয়টি ভারী আঘাত, যে আঘাতের ফলে শরীরের পাকাপাকি ক্ষতি হয়  এবং তৃতীয়টি হল আঘাতের ফলে মৃত্যু। ৭৫০ টাকা থেকে শুরু করে জরিমানা পৌঁছে যেতে পারে ৭৫ হাজার টাকা পর্যন্ত। ক্ষেত্র বিশেষে অপরাধীকে পশুর মূল্যের থেকে  ৩ গুণ বেশি টাকা জরিমানা দিতে হতে পারে। পশুর মৃত্যুতে অপরাধীকে কারাদণ্ড দেওয়ার কথাও বলা হয়েছে এই পরিবর্তিত সংশোধিত আইনে।

বর্তমান আইনে জরিমানার অঙ্ক নগণ্য তাই কেউ এই বিষয় সচেতন হচ্ছে না বলেই নতুন আইন আনা হচ্ছে, এমনটা নয়। বর্তমান আইনে পশুদের লাথি মারা, নির্যাতন করা, অনাহারে রাখলে বা কোনো ভাবে অত্যাচার করলে তেমন শাস্তি হত না৷ আইনের গেড়োয় বহু অপরাধীই এতদিন ছাড় পেয়ে গেছে, মনে করছেন অনেকেই।

সম্প্রতি কেরলে বিস্ফোরক ভর্তি আনারস খাওয়ার পর হাতির মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে আইনের ফাঁকগুলো আরও বেশি নজরে এসেছে। তাই এই আইনের সংশোধনের প্রস্তাব দিয়েছিলেন রাজ্যসভার সাংসদ রাজীব চন্দ্রশেখর। ভারতের বিভিন্ন আদালতে মোট ৩১৬টি এই ধরনের  মামলা বিচারাধীন৷ এর মধ্যে ৬৪টি মামলা সুপ্রিম কোর্টে বিচারাধীন। মোট ১৯৯টি মামলা পাঁচ বছরের বেশি সময় ধরে চলছে। জানা গিয়েছে, এই আইন সংশোধনের খসরার কাজ শেষ হলে সমস্ত মহলের মতামত নেওয়া হবে৷ তার পরই নতুন আইন কার্যকরী হবে।