আগস্ট মাস থেকে আসছে নতুন বিধি, আধার নিয়ে বড়োসড়ো পদক্ষেপ কেন্দ্রের

যেকোনো ভোটের আগে দুর্নীতি হওয়া ভীষণভাবে স্বাভাবিক ব্যাপার। এই দুর্নীতি হয় মূলত পরিচয় পত্রের কাঁধে ভর দিয়ে। ভুয়া ভোটিং আটকানোর জন্য এবার আধার কার্ডের তথ্যাবলীর সঙ্গে ভোটার লিস্টকে সংযুক্ত করার নতুন একটি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলেছে কেন্দ্র। সম্প্রতি অ্যামেন্ড করা হয়েছে, রেজিস্ট্রেশন অফ ইলেকট্ররস রুলস। এই তথ্য সংযুক্ত করার জন্য নতুন একটি ফর্ম আনা হয়েছে সকলের সামনে।

গত বছর ডিসেম্বরে ইলেকশন লজ অ্যাক্ট ২০২১ পাস করা হয় সংসদে। সেই নতুন আইনের নিরিখে গত শুক্রবার কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী ভূষণা করেছেন, আইন সংক্রান্ত সমস্ত সংশোধনীগুলি। এবার পহেলা আগস্ট থেকে লাগু করা হবে এই নিয়ম। এই আইন সংক্রান্ত নোটিশ জানানো হয়েছে, যাদের ভোটার লিস্টের নাম রয়েছে তারা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে অবশ্যই দেখা করে সমস্ত বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেবেন।

২০২৩ সালের ১ এপ্রিল তারিখের আগে এই প্রক্রিয়া শেষ করতে চাইছেন কেন্দ্র। এই সংক্রান্ত যে বিল পাশ করা হয়েছে সেখানে বলা হয়েছে, ইলেক্টোরাল রোলের নাম অন্তর্ভুক্তি করার জন্য কোন আবেদন খারিজ করা হবে না। কেউ যদি আধার কার্ড সংক্রান্ত তথ্য না দিতে পারে সে ক্ষেত্রে নাম বাতিল করা হবে না।

এই কথা বলি সম্পর্কে জানার জন্য সিক্স বি হিসাবে নতুন একটি ফ্রম আসতে চলেছে। যাদের নাম ভোটার আইডি কার্ডে আছে তারা যাবতীয় তথ্যাবলী জেনে নেবেন এই ফর্মের মাধ্যমে। যাদের আধার কার্ড নেই, তাদের ক্ষেত্রেও রয়েছে নির্দিষ্ট কিছু অপশন। আধার কার্ড যাদের নেই সেক্ষেত্রে অন্যান্য পরিচয় পত্র তথ্য হিসেবে দিতে হবে।

উল্লেখ্য, এতদিন পর্যন্ত যে সমস্ত ব্যক্তিদের বয়স ১৮ বছর পর্যন্ত বা তার উর্ধে তারা প্রাপ্তবয়স্ক ভোটার আইডি কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারতেন কিন্তু এবার এসেছে নতুন নিয়ম যেখানে বলা হয়েছে, ১ জানুয়ারি, ১ এপ্রিল, ১ জুলাই এবং ১ অক্টোবরের আগে কেউ যদি ১৮ বছর বয়সী পদার্পণ করেন সেক্ষেত্রে ভোটার আইডেন্টি কার্ডের জন্য নিজেদের নাম অনুমোদিত করতে পারবেন তিনি।