সালমানের বজরঙ্গি ভাইজান এর রেকর্ড ভেঙ্গে প্রথম দশে জায়গা করে নিল “কাশ্মীর ফাইলস”

এ যেন ইতিহাস গড়ার পালা তৈরি হয়েছে। পুষ্পা থেকে শুরু করে ট্রিপল আর, অন্যদিকে কাশ্মীর ফাইলস, একের পর এক সিনেমা ইতিহাস গড়ে তুলেছে বক্স অফিসে। বিবেক অগ্নিহোত্রী পরিচালিত এই সিনেমা কোটি কোটি মানুষের জীবনে স্থায়ীভাবে জায়গা করে নিয়েছে। কিছু কিছু সিনেমা এমন তৈরি করা হয় যা চিরকালের জন্য আমাদের দৃষ্টিভঙ্গিকে পাল্টে দিতে পারে, এই সিনেমা তেমনই একটি সিনেমা।

সিনেমাটির মুক্তি পাওয়ার প্রথম দিন ৩.৫৫ কোটি টাকা আয় করে ফেলেছিল। প্রথম দিনে মাত্র সারা ভারত জুড়ে ৬০০ টি স্ক্রিনে মুক্তি পেয়েছিল। কিন্তু জনসাধারণের দাবিতে ঠিক তারপরের দিন ২০০০ স্ক্রিনে মুক্তি পায় এই সিনেমাটি। কোন বড় ধরনের তারকা নয় বরং জনসাধারণের হাত ধরে সাফল্যের দিকে এগিয়ে চলছিল এই সিনেমা।

সিনেমাটির প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল একাধিক হিন্দি এবং দক্ষিণ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির বেশ কিছু সিনেমা কিন্তু কোন সিনেমায় কাশ্মীর ফাইলসের সামনে বেশিদিন দাঁড়াতে পারেনি। এখনো পর্যন্ত সিনেমাটি বিশ্বব্যাপী বক্স অফিসে আয় করে ফেলেছে প্রায় ৩০০ কোটি টাকার বেশি। ভারতীয় বক্সঅফিসে এখনো পর্যন্ত সিনেমাটি ২৩৮.৭২ কোটি টাকা আয় করে ফেলেছে।

তবে এবার একটু পিছিয়ে যেতে হবে আমাদের। আজ থেকে কিছু বছর আগে একটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছিল যা পাকাপাকি ভাবে মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছিল। সিনেমাটি আজও আমাদের কাছে সমানভাবে গ্রহণযোগ্য। ছোট্ট একটি মেয়ের বাড়ি ফিরে যাওয়াকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছিল এই সিনেমা। কি বুঝেছেন সালমান খানের বজরঙ্গি ভাইজানের কথা বলছি। চতুর্থ শুক্রবার অর্থাৎ ২২ তম দিনে কাশ্মীর ফাইলস ভেঙে ফেলেছে বাজরাঙ্গি ভাইজানের রেকর্ড। অন্যদিকে ওই একই দিনে ১.৫ কোটি টাকা সংগ্রহ করে দশম স্থানে জায়গা করে নিয়েছে দা কাশ্মীর ফাইলস।

২২তম দিন আয়ের হিসেবে সবচেয়ে ওপরে রয়েছে ‘বাহুবলী ২’। বক্সঅফিসে সিনেমাটির মোট আয় ৪.১৫ কোটি টাকা। এরপর রয়েছে উরি, তানাজি, কবির সিংহ, পদ্মাবত,পিকে ইত্যাদি সিনেমা যাদের বক্স অফিস কালেকশন যথাক্রমে ৩.৫ কোটি, ২.৫৪ কোটি, ২.৫ কোটি এবং ১.৮২ কোটি। তাই সংগ্রহের দিকে খুব পিছিয়ে নেই দ্য কাশ্মীর ফাইলস। ১.৫ কোটি আয় করে পিছনে ফেলে দিয়েছে বজরঙ্গি ভাইজানের রেকর্ড। নিজের স্থান করে নিয়েছে দশম স্থানে।

প্রসঙ্গত, মুক্তির দিন ৩.৫ কোটি আয় করলেও প্রতিদিনই বেড়েছে মুভিটির আয়। মানুষ যতই সিনেমাটির কথা জানছে তত আগ্রহ বাড়ছে এবং তত মানুষ এই সিনেমাটি দেখতে পেক্ষাপটে ভিড় জমাচ্ছে। দ্বিতীয় দিন ৮.৫ কোটি, তৃতীয় দিন ১৫.১ কোটি এরপর পঞ্চম ও ষষ্ঠ দিনে ১৮ এবং ১৯.০৫ কোটি আয় করেছে সিনেমাটি। প্রথম সপ্তাহান্তে আয় ৯৭.৩ কোটি। এরপর দ্বিতীয় সপ্তাহে কমিয়েছে রেকর্ড ১০৭.৯৭ কোটি। চতুর্থ সপ্তাহে গতি একটু কমে গিয়ে আয় করেছে ৩০.৯৫ কোটি। তবে এখনো পর্যন্ত সিনেমাটি যেমনি আয় করুক না কেন এই সিনেমাটি যে মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি সম্পূর্ণ পাল্টে দিয়েছে তা বলাই বাহুল্য।