বৃন্দাবন দর্শনে গিয়ে বড় ঘোষণা অভিনেত্রী কঙ্গনার, উত্তরপ্রদেশ জুড়ে চালানো হবে জাতীয়তাবাদী প্রচার

সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের বৃন্দাবনে শ্রী বাঁকে বিহারী মন্দিরে উপস্থিত হয়েছিলেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত (Kangana Ranaut)। কঙ্গনা যেখানে উপস্থিত হবেন সেখানে বিতর্ক হবে না তা কি কখনো হয়। তবে এই বিতর্কিত অভিনেত্রীকে দেখার জন্য বাঁকে বিহারী মন্দিরের উপস্থিত হয়েছিলেন কয়েক হাজার মানুষ। মন্দিরে অভিনেত্রীকে ঈশ্বরের দর্শন করতে এবং ভক্তিতে মগ্ন থাকতে দেখা গিয়েছিল।

এবার আসি আসল কথায়। সামনেই উত্তর প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচন। এই নির্বাচনের পূর্বে বৃন্দাবনে কঙ্কনা কোন উদ্দেশ্য নিয়ে উপস্থিত হয়েছিলেন তা কারোর অজানা নয়।অগুনতি মানুষের সামনে হাসিমুখে কথা বলতে শোনা গেল কঙ্কনাকে। সাংবাদিকদের করা প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “জাতীয়তাবাদী মতাদর্শকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য জাতীয়তাবাদী দলের হয়ে নির্বাচনী প্রচার করবো আমি”।

তিনি আরো বলেন, “আমি শ্রীকৃষ্ণের একজন ভক্ত। বিহারীজির দর্শন পেয়ে আমি আপ্লুত। শুধুমাত্র দর্শন নয়, আমি শ্রীকৃষ্ণের প্রসাদ পেয়েছি, এটা আমার কাছে বিশাল ভাগ্যের ব্যাপার”।প্রসঙ্গত, এর আগে উত্তরপ্রদেশে প্রবেশ করার সময় অভিনেত্রীর গাড়ি আটক করা হয়েছিল। সেই প্রসঙ্গে অভিনেত্রী বলেন,” কিছু মানুষ অবশ্যই গাড়ি আটকে ছিলেন কিন্তু অনুরোধ করায় তাড়াতাড়ি তারা গাড়ি ছেড়ে দেন। খারাপ মানুষের পাশাপাশি কিছু ভালো মানুষ আছে রয়েছেন এই পৃথিবীতে, সেটা আরো একবার প্রমাণ হয়ে যায়”।

সুশান্ত সিং রাজপুত থেকে শুরু করে কৃষক আন্দোলন সর্ব ক্ষেত্রে বিতর্কিত মন্তব্য করে খবরের শিরোনামে বারংবার উঠে এসেছিলেন এই অভিনেত্রী। এই অভিনেত্রীকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য সরকার দিয়েছিল Y ক্যাটাগরি সুরক্ষা। নিঃসন্দেহে এই অভিনেত্রী উত্তরপ্রদেশের নির্বাচনী প্রচারের জন্য আসায় যে কিছুটা লাভবান হবে জাতীয়তাবাদী পার্টির, তা বলাই বাহুল্য।