যদি আমি নির্বাচক প্রধান হতাম তো টি-20 বিশ্বকাপে শিখর ধবনকে খেলার সুযোগ দিতাম না, কেনো একথা বললেন ভারতের প্রাক্তন তারকা…

যেমনটা আমরা জানি ভারতীয় দলের বাঁহাতি ওপেনার ব্যাটসম্যান শিখর ধবন বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন চোটের কারণে। আর তারপর তার চোট থাকার কারণেই ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওয়ানডে আর t-20 সিরিজে মিলেনি প্লেইং ইলেভেন এর সুযোগ। তবে এই চোট সারিয়ে আবার তাকে প্রত্যাবর্তন করতে দেখা যায় রঞ্জি ট্রফিতে। আর এখন ভারতীয় টিমের হয়ে তার শ্রীলংকার বিরুদ্ধে চলতি টি-টোয়েন্টি সিরিজে খেলার সুযোগ দেওয়া হয়েছে।

তবে দিন দিন যেভাবে লোকেশ রাহুল ভারতীয় দলে তার প্রদর্শন দেখিয়েছেন তার জেরে এখন এটা বলা বাহুল্য যে ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসাবে এখন লোকেশ রাহুল আর রোহিত শর্মা দুজনই ক্রিকেটপ্রেমীদের মন জয় করে নিয়েছে। তাই এখন ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসাবে শিখর ধবনের নাম চাপের মধ্যে রয়েছে।যদিও এবারে শিখর ধবন কে শ্রীলংকার বিরুদ্ধে চলা তিনটি টি- টোয়েন্টি ম্যাচে টিমে নির্বাচিত করা হয়েছে, কিন্তু এখন তাকে টেস্ট ক্রিকেটের পর t-20 তেও বাতিল ঘড়া হিসাবে মনে করা হচ্ছে।

একদিন নিজেকে ভারতের হয়ে তিন ফরম্যাটেই প্রতিষ্ঠা করেছিলেন শিখর ধবন তবে গত বছর তার টেস্ট ক্রিকেটে জায়গা পাওয়া শেষ হয়ে গেছে। যার পর থেকে ভারতীয় টেস্ট টিমে তার প্রত্যাবর্তন হয়নি। তবে তার পর থেকে তাকে লক্ষ্য করা যায় টি-টোয়েন্টি ফরমেটে আর ওয়ানডে খেলতে। তবে এখন তার ওপর এই টি-টোয়েন্টি ফরমেট ভারতীয় উদয়মান ব্যাটসম্যান লোকেশ রাহুল বেশ চাপ সৃষ্টি করছে, কারণ যেভাবে তিনি ভারতীয় দলের হয়ে ভালো প্রদর্শন করছেন তাতে দলে জায়গা হওয়া নিয়ে বেশ চাপে রয়েছে শিখর ধাওয়ান।

তবে যেমনটা আমরা দেখতে পাচ্ছি এখন ভারত বনাম শ্রীলংকা টি টোয়েন্টি সিরিজটিতে ভারতীয় ওপেনার ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মাকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে যে কারণে এখন ওপেনিং ব্যাটসম্যান হিসেবে মাঠে নামবেন শিখর ধবন আর কে এল রাহুল। তবে এই বিষয়ে ভারতের প্রাক্তন তারকা ওপেনিং ব্যাটসম্যান কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্তের ধারণা শিখর ধাওয়ান যতই রান করুন না কেনো তিনি কে এল রাহুলের চেয়ে ভালো হতে পারেন না। এরই সাথে ভারতের প্রাক্তন ওপেনিং ব্যাটসম্যান তারকা আরও বলেন রাহুল ধবনের থেকে যথেষ্ট ভালো প্রদর্শন করেছে।

এইদিন স্টার স্পোর্টসের তামিলের সাথে কথা বলতে গিয়ে তিনি বললেন শ্রীলংকার বিরুদ্ধে রানের কোনো গুরুত্ব নেই আর যদি আমি এখন কমিটির চেয়ারম্যান পদে নিযুক্ত থাকতাম তাহলে আমি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য ধবনের নাম নির্বাচিত করতাম না টিমে। তার আর রাহুলের মধ্যে এখন কোন মোকাবেলায় নেই। তবে যেভাবে দিনদিন কে এল রাহুলের প্রদর্শন লাগাতার উন্নত হয়ে চলেছে তার জেরে এটা বলা বাহুল্য যে দলে শিখর ধবনের জায়গাটা এখন বেশ চাপের মধ্যে হয়ে উঠেছে।

কিছুদিন আগে যে লোকেশ রাহুল ভারতের হয়ে টেস্ট টিমে নিজের জায়গা হারিয়েছিলেন তারপর খানিকটা চাপে ছিলেন তিনি সীমিত ওভারের খেলা ওয়ান ডে আর টি টোয়েন্টিতে তার জায়গা করে নিয়ে তবে সেখানে ভালো প্রদর্শন দেখিয়ে তিনি তার নিজের জায়গা করে নিয়েছেন। সাথে সাথে আরো বলে রাখি যে 9 টি-টোয়েন্টি ইনিংসে রাহুলের ব্যাট থেকে মোট চারটি হাফ সেঞ্চুরি ও বেরিয়েছে। আর অন্যদিকে যদি শিখর ধাওয়ানের কথা বলা হয় তাহলে তিনি লাগাতার ফ্লপ হচ্ছেন এই ফরমেটের।

শুধু তাই নয় লক্ষ্য করা যাচ্ছে শিখর ধবন এই সীমিত ওভারের খেলা টি-টোয়েন্টি ম্যাচেও দ্রুততার সাথে রান করতে পারছেন না, তারই সাথে আরো বলে রাখি গত 13 টি ইনিংসে তিনি কোনো হাফ সেঞ্চুরি করতে পারেননি। তবে ক্রিকেট যে অনিশ্চয়তার খেলা তা বলাই যেতে পারে কারণ এখানে কে কখন পাল্টা জবাব দিয়ে দেবে মাঠের মধ্যে তা কেউ আগে থেকেও অনুমান করতে পারেনা।

Related Articles

Close