Skip to content

Jio 5G ইন্টারনেট স্পিড ফাঁস, এইবছরই অবিশ্বাস্য ইন্টারনেট স্পিড পেতে চলেছে গ্রাহকেরা

আসতে চলেছে সুখবর। চলতি বছরেই লঞ্চ হতে চলেছে 5g পরিষেবা। আর আমাদের পড়ে থাকতে হবে না 4 জি পরিষেবাতে। রিপোর্ট অনুযায়ী, চলতি বছরের মাঝামাঝি সময় থেকেই ফাইভ-জি স্পেক্ট্রাম ডিসট্রিবিউশন শুরু হয়ে যাবে। যদিও এই ডিস্ট্রিবিউশন প্রসেস শুরুর অনেক আগে থেকে বিভিন্ন মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডার কোম্পানি পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু করে দিয়েছে 5g পরিষেবা নিয়ে। কলকাতার পাশাপাশি দেশের ১৩ টি বড় বড় শহরে শুরু হতে চলেছে এই পরিষেবা।

বিশেষ সূত্র থেকে জানা গেছে, প্রথমে ১৩ টি শহরে এই পরিষেবা শুরু হবে। বিভিন্ন কোম্পানির ফাইভ-জি টেস্টিং এর সময় জিও কোম্পানির টেস্টিং এর একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায় যা থেকে 5g বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য জানা যায়। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, জিও তার গ্রাহকদের ফাইভ-জি পরিষেবার মাধ্যমে 420mbps ডাউনলোড স্পিড এবং 412 mbps আপলোড স্পিডের সুবিধা দেবে।

তুলনা করতে গেলে জিও 4g র তুলনায় 5g স্পিড অনেকটাই বেশি থাকবে। যেখানে 4g ডাউনলোড স্পিড 46.82 এমবিপিএস এবং আপলোড স্পিড 25.31 এমবিবিএস। সেখানে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন,5g স্পিড 4g তুলনায় 15 গুণ বেশি হতে চলেছে।


তবে অন্যদিকে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন এত স্পিড হওয়া কোনোভাবেই সম্ভব নয়। দেশে যখনই ফাইভ-জি লঞ্চ করবে তখনই প্রায় কোটি কোটি মানুষ ফাইভ-জি ব্যবহার করতে শুরু করে দেবে। একসঙ্গে কোটি মানুষের বেশি এই পরিষেবা ব্যবহার করলে কোন ভাবেই স্পিড 420 এমবিপিএস হওয়া সম্ভব নয়।

প্রসঙ্গত, জিওর পাশাপাশি ভোডাফোন আইডিয়া এবং এয়ারটেল খুব শীঘ্র এই পরিষেবা হতে চলেছে। চলতি বছরের শেষের দিকে অথবা আগামী বছরের শুরুর দিকে 5g পরিষেবা আনতে পারে ভোডাফোন আইডিয়া এবং এয়ারটেল। অপরদিকে কেন্দ্রীয় সরকারের টেলিকম সংস্থা বিএসএনএল এখনো পর্যন্ত 4g নেটওয়ার্ক চালু করতে পারেনি, সে ক্ষেত্রে বিএসএনএল এর পক্ষে এখনই 5g পরিষেবা চালু করা প্রায় অসম্ভব বলে মনে করা হচ্ছে।