রাজ্যে বাধ্যতামূলক হল মাস্ক পরা, নিয়ম ভাঙলে নেওয়া হবে আইনি পদক্ষেপ সহ জরিমানাও

ভারতের প্রতিটি রাজ্যের সাথে পশ্চিমবঙ্গেও করোনার দাপট খুবই বেড়েছে। প্রতিদিন ১৩ হাজারের বেশি মানুষ পশ্চিমবঙ্গে এই রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। মৃত্যু বরণ করছেন বহু মানুষ। হঠাৎ করে পুনর্বার করোনা ভাইরাসের দাপট এইরকম বেড়ে যাওয়ার জন্য চিহ্নিত করা যেতে পারে মানুষের উদাসীনতাকে। তাই এবার রাজ্য সরকার রাজ্য বাসীদের জন্য মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছে।

 

এখন থেকে আর মাস্ক (Mask) ছাড়া যেখানে সেখানে ঘুরে বেরোনো, রাস্তায় দাঁড়িয়ে সেলফি তোলার জন্য মাস্ক নামিয়ে ফেলা, আর কোনওটাই চলবে না। আবার নাকের নীচে বা থুতনিতে মাস্ক পরাও যাবে না। এখন থেকে গোটা রাজ্যেবাসীর জন্য মাস্ক বাধ্যতামূলক করেছে রাজ্য সরকার (West Bengal Government)।

গত শনিবার নবান্ন থেকে এই নিয়ম জারি করা হয়েছে। যদি কোনো ব্যক্তি এই নিয়মের বিরুদ্ধচারণ করেন তবে তার বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। তবে শুধু মাস্ক (Mask) পড়াই নয়। এর পাশাপাশি এই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, যে কোনও পাবলিক প্লেসে সামাজিক দূরত্ব এবং অন্যান্য করোনা বিধিও মানতে হবে।

প্রথমবার ২০২০ সালের মার্চ মাসের দিকে পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal) করোনাভাইরাসের কালোছায়া আসে। তারপর অক্টোবর নভেম্বর মাসের দিকে করোনাভাইরাসের সংক্রমনের গ্রাফ কিছুটা কমলেও বর্তমান সময়ে আবার করোনা ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে। এই কারণেই পশ্চিমবঙ্গ সরকারের (West Bengal) পক্ষ থেকে মাস্ক পরা এবং করোনা সতর্কতাঃ বিধি মেনে চলাকে বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা ভোটের জন্য বিভিন্ন রাজনৈতিক মিছিল ও সভা এছাড়া ধর্মীয় অনুষ্ঠান ও ভিড়েই জন্য যেন করোনা তার কালো প্রভাব বিস্তার করতে শুরু করে।