প্রয়াত অভিনেতাকে চোখের জলে বিদায় বলিউডের, ভারসোভা কবরস্থানে চিরতরে শায়িত ইরফান খান

টানা দু’বছর ধরে মারণ কর্কট রোগের সঙ্গে লড়াই করে কঠিন সময়ে চির নিদ্রায় চলে গেলেন অভিনেতা ইরফান খান। এইভাবে অভিনেতার অকাল মৃত্যুতে এক প্রকার শোকস্তব্ধ গোটা বলিউড থেকে শুরু করে তার সকল ভক্তরা। এমন কী তার সহকর্মীরা পর্যন্ত শেষবারের মতো তাকে কাছ থেকে দেখতে পেল না, সাক্ষী থাকতে পারলো না অভিনেতার শেষ যাত্রাতে তারা কারণ দেশে এই মুহূর্তে কঠিন পরিস্থিতি দেশজুড়ে করোনা সংক্রমণকে রুখতে জারি রয়েছে লকডাউন।

বেলা তিনটে নাগাদ মুম্বাইয়ের ভারসোভা কবরস্থানের চিরন্তরের জন্য শায়িত করা হল ইরফান খানের দেহ, আর নিয়ম অনুযায়ী তার শেষকৃত্য সম্পন্ন করল তার দুই ছেলে। শেষকৃত কাজে উপস্থিত ছিলেন তার পরিবারের কয়েকজন সদস্য ও তার স্ত্রী সহ তার দুই ছেলে।এইদিন মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন হাসপাতাল থেকে যখন তার দেহ নিয়ে যাওয়া হয় কবরস্থানে সেখানে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত হয়েছিলেন কমেডিয়ান কপিল শর্মা ও বলিউডের গায়ক মিকা সিং। তার পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন রাজপাল যাদব সহ পরিচালক বিশাল ভরদ্বাজ।

যেহেতু দেশজুড়ে লকডাউন তাই ঠিক সেভাবে ইরফানের শেষ বিদায় জানানো হল না যেমনটা ভাবে আরো পাঁচজন অভিনেতাদের জানানো হয় তবে তার মৃত্যুর খবর শুনে ক্রিকেট জগত থেকে শুরু করে বলিউড জগত থেকে শুরু করে এর পাশাপাশি রাজনৈতিক জগত থেকে একাধিক টুইট করা হয় তাকে শ্রদ্ধা জানাতে। এর পাশাপাশি এ কথাও জানানো হয় বলিউড এমন এক অভিনেতাকে হারালো যা সারা বিশ্ব মনে রাখবে তিনি ছিলেন অত্যন্ত প্রতিভা শালী অভিনেতা।

এর পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকেও এই বিষয়ে টুইট করতে দেখা যায় যেখানে তিনি লিখেন ইরফান খানের মৃত্যু গোটা বিশ্ব চলচ্চিত্র ও নাট্য জগতের ক্ষতি, ওকে সারাবিশ্ব মনে রাখবে অত্যন্ত প্রতিভাশালী এক অভিনেতা হিসাবে যে অভিনেতার অবাধ বিচরণ ছিল সর্বোচ্চ।পাশাপাশি তার পরিবার বন্ধু এবং ভক্তদের প্রতি সমবেদনা জানান তিনি।

অন্যদিকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে এই বিষয়টির করতে দেখা যায় যেখানে তুলতে তিনি লিখেন প্রখ্যাত অভিনেতা ইরফান খানের মৃত্যুতে তিনি শোকাহত। ওর অসাধারণ কাজ সবসময় আগামী প্রজন্মের কাছে একটা স্মৃতি হয়ে থেকে যাবে।গত কয়েক বছর আগে কলকাতা এসে আমার সঙ্গে দেখা করেছিল সে আজ মনে পড়ে যাচ্ছে সেসব কথা, ওর ভক্ত বন্ধু পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা রইল।