5G-এর চেয়ে ৫০ গুন দ্রুত গতিতে চলবে ইন্টারনেট, ভারত গড়ছে 6G নেটওয়ার্ক, চোখের নিমেষে ডাউনলোড হবে যেকোন ফাইল

ভারত যখন ‘ ডিজিটাল ইন্ডিয়া ‘ স্লোগান এর মাধ্যমে ভারত কে ডিজিটালাইজেশনের করার দিকে আরও এক পথ এগিয়ে যেতে চাইছে, ঠিক তখন ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার চাইছে মোবাইল নেটওয়ার্ক ও দ্রুত গতির ইন্টারনেটের সুবিধা আরও বেশি পরিমাণে উন্নত করার জন্য 6G নেটওয়ার্ক কানেকশন এর ট্রায়াল এর প্রস্তুতি শুরু করতে চাইছে । ভারতের টেলিকম বিভাগ (TRAI) তার দায়িত্বপ্রাপ্য সরকারী টেলিকম রিসার্চ কোম্পানি সি-ডটকে দেওয়া হয়েছে।

কিছু বিশেষ তথ্য অনুযায়ী, সেই বিভাগ কে সি-ডট থেকে 6G নেটওয়ার্ক এর সাথে সম্পর্কিত সমস্ত ধরনের প্রযুক্তি এর সম্ভাবনা জিনিস নিয়ে চিন্তা ভাবনা করতে বলা হয়েছে। স্যামসাং (Samsung) এবং এলজি (LG) এর মতো গোটা বিশ্বজুড়ে কিছু স্মার্টফোন নির্মাতা কোম্পানিগুলোও এর মধ্যে 6G প্রযুক্তি নিয়ে চলবে এরকম স্মার্টফোন এর নির্মাণ এর কাজ শুরু করে দিয়েছে।বিশেষ কিছু রিপোর্ট অনুযায়ী বলা হচ্ছে, 6G এর ইন্টারনেট প্রযুক্তি এর মধ্যে ইন্টারনেটের গতি 5G এর থেকে ৫০গুণ পর্যন্ত বেশি দ্রুত গতির হতে পারে।

এটি অনুমান করা হচ্ছে যে, গোটা বিশ্বের মধ্যে 6G প্রযুক্তির ইন্টারনেট এর সুবিধা ২০২৮-৩০ এর মধ্যে আসার সম্ভাবনা আছে। বর্তমান দিনে এখন আপাদত 5G নেটওয়ার্ক এরই ট্রায়াল চলছে এখন ভারতে ও এটির লঞ্চ এখনও বাকি আছে। ভারত দেশে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীদের মধ্যে বর্তমানে এখন 4G ইন্টারনেট এর প্রযুক্তি চলছে।এই সময় এখন 5G ইন্টারনেট এর ট্রায়েল চলছে ও এটি বাজারে লঞ্চ হতে এখনো কিছু সময় লাগবে, কিন্তু ইতিমধ্যেই কিছু স্মার্টফোন নির্মাতা কোম্পানি 5G প্রযুক্তির স্মার্টফোন বানিয়ে ফেলেছে, এবং ভারতীয় বাজারে তার বিক্রয় ও শুরু হয়ে গেছে।

এমন সময় যেখানে 5G ইন্টারনেট এর সুবিধা এখনও ভারতীয় বাজার আসেনি, তখন সেখানে 6G ইন্টারনেট কানেকশন এর ট্রায়াল আরম্ভ করে লাভ টা কি হবে? কিন্তু ,ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার এখনএই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কারণ যাতে ভারত 6G ইন্টারনেট সুবিধা পাওয়ার কোনো রকম বিষয় নিয়ে অন্যান্য বাকি দেশ এর কোম্পানি গুলির থেকে পিছিয়ে না থেকে যায়।সেই জন্য এই 6G ইন্টারনেট এর কাজে আর দেরি করা সম্ভব না।