Hello নয় বরং এবার থেকে ফোনে কথা বলার সময় বলুন “জয় বাংলা”, মুখ্যমন্ত্রী মমতা

আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের সবথেকে বড় হাতিয়ার  বাঙালি-অবাঙালি ইস্যু। বাংলা আর বাঙালীর আবেগকে কাযে লাগাতে চাইছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  একদিকে বিজেপিকে বহিরাগত বলে আক্রমণ করছেন, অন্যদিকে বাঙালীদের মধ্যে বাঙালিয়ানা জাগ্রত করতে চাইছেন তিনি। তাই নিজের ভাষণের শেষে সবসময় ‘জয় বাংলা” বলছেন।

২৩ জানুয়ারি নেতাজির জন্মজয়ন্তী উপলক্ষ্যে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে সরকারি অনুষ্ঠানে হাজির হয়ে ‘জয় শ্রী রাম” ধ্বনি শুনে রেগে গিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে  ‘জয় শ্রী রাম” এর পাল্টা ‘জয় বাংলা” স্লোগান তুলে মঞ্চ ত্যাগ করেছিলেন৷ এরপর তৃণমূলের তরফ থেকে বলা হয়,  বিজেপির কেউ ‘জয় শ্রী রাম” বললে তাঁকে পাল্টা ‘জয় বাংলা” বলুন।

এবার মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের মানুষদের পরামর্শ দিলেন,  ফোনে হ্যালো না বলে জয় বাংলা বলুন। মালদায় জনসভা করেন তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি নানান ইস্যুতে বিজেপিকে আক্রমণ করেন। মালদাবাসীদের কাছে আক্ষেপ করে বলেন,” গতবার লোকসভায় শূন্য পেয়েছি, গত বিধানসভাতেও প্রায় শূন্য। কংগ্রেসের কয়েকজন আমাদের সঙ্গে এসেছে বলে আমরা কয়েকটা আসন পেয়েছি। ”

বিধানসভা অধিবেশন শেষ দিন 72 হাজার কোটি টাকার নতুন প্রকল্পের ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী মমতার, থাকছে

মমতা বলেন, “আমি যখন মালদায় আসি তখন অনেকেই আমার সভা দেখতে আসে। কিন্তু ভোট বাক্সে তাঁর প্রভাব পড়েনা। তিনি আক্ষেপের সুরেই বলেন, আমরা কি একদম পাবো না কোনদিন? মালদা কি আমরা পাবো না? এরপর মুখ্যমন্ত্রী সভা শেষে মালদাবাসীকে আবেদন করে বলেন, ‘রোজ সকালে ঘুম থেকে উঠে বলবেন জয় বাংলা। ফোনে হ্যালো বলার বদলে বলবেন জয় বাংলা।”