অগ্নিবীর’দের জন্য বিশেষ কোর্স ব্যবস্থা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের…

এবার ইন্দিরা গান্ধী ন্যাশনাল ওপেন ইউনিভার্সিটি অর্থাৎ ইগনু এক অভিনব পদক্ষেপ নিতে চলেছেন যেখানে তিন বছরের স্নাতক ডিগ্রী দেবার কথা চিন্তা ভাবনা করছেন তাঁরা, তাও আবার অগ্নিবীরদের (Agneepath Scheme ) জন্য। গত বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধানের সভাপতিত্বে যে বৈঠক বসে ছিল তাতে কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী সিদ্ধান্ত নিয়েছে গত ১৪ ই জুন ভারতীয় যুবকদের জন্য অগ্নিবীরের নিয়োগ প্রকল্প অনুমোদন করা হয়েছে এবং এই প্রকল্পের অধীনে চার বছরের চাকরি জীবন শেষ করার পর যুবকদের ভবিষ্যতের কথা টিকেও বিশেষ নজরে রাখা হয়েছে, যে কারণে তিন বছরের দক্ষতাভিত্তিক স্নাতক ডিগ্রী প্রোগ্রাম শুরু করতে চলেছে ইগনু।

 চার বছর পর মাত্র ২৫% অগ্নিবীর সেনাবাহিনীর সঙ্গে যুক্ত হবে

এ প্রকল্পের মেয়াদ শেষে অভিজ্ঞতা ও দক্ষতার স্বীকৃতি দেবে ইগনু, তাঁরা তবে স্নাতক ডিগ্রির জন্য দক্ষতা প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ৫০% নম্বর পাওয়া যাবে, বাকি ৫০% নম্বর নির্ধারিত হবে ভাষা, অর্থনীতি, ইতিহাস, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, জনপ্রশাসন, গণিত, শিক্ষা, বাণিজ্য, পর্যটন, ব্যবসা, অধ্যয়ন, কৃষি ও জ্যোতিষের মতো আরো প্রভৃতি বিষয়ের উপর। তবে এর সাথে সাথে ইংরেজি এবং পরিবেশগত অধ্যায়নের ক্ষেত্রে জোর দেয়া হবে, তবে প্রকল্পটিকে ইউজিসি নিয়ম এবং জাতীয় শিক্ষানীতি ২০২০ অধীনে জাতীয় ক্রেডিট ফ্রেমওয়ার্ক ন্যাশনাল স্কিল কোয়ালিফিকেশন ফ্রেমওয়ার্কের সাথেও যুক্ত করা হয়েছে।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিংহ জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার নিরাপত্তা বিষয়ক কমিটির বৈঠকে ছাড়পত্র পেয়েছে ‘অগ্নিপথ’ প্রকল্প। এই প্রকল্পে প্রাথমিক পর্যায়ে চার বছরের জন্য নিয়োগ করা হবে অগ্নিবীরদের।

প্রথম বছরের কোর্স শেষে শংসাপত্র এবং প্রথম ও দ্বিতীয় বর্ষের কোর্স সমাপ্তির পর স্নাতক ডিপ্লোমা এবং তিন বছরে সময়সীমার মধ্যে সমস্ত কোর্স শেষ করার জন্য ডিগ্রী দেয়া হবে। এই ডিগ্রি সমস্তটাই স্বীকৃত হবে ইউজিসি, এ আই সি টি ই ও এন সি ভি কি টির দ্বারা। এছাড়াও রয়েছে ভারত এবং বিদেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ, যা নিঃসন্দেহে এক উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ বলা যায়।