একদম সস্তা দামে নজর কাড়া ডিজাইনে হাজির দেশের প্রথম মাইক্রো ইলেকট্রিক গাড়ি EaS-E

পেট্রল ডিজেলের ক্রমাগত মূল্যবৃদ্ধির কারণে অনেকেই ইলেকট্রিক গাড়ি কেনার কথা ভাবছেন। অনেকে আবার পরিবেশের কথা ভেবে ইলেকট্রিক গাড়ি কেনেন। ইলেকট্রিক গাড়ি চালিয়ে বায়ুদূষণ কমানো সম্ভব। বিশেষ করে দেশের প্রায় সব শহরে বায়ু দূষণ যে পর্যায়ে পৌঁছে তাতে ইলেকট্রিক গাড়ি দিনদিন আরও প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠছে, কিন্তু এখনও এদেশে ইলেকট্রিক গাড়ি কিনতে অন্তত ১০ লাখ টাকা খরচ করতে হচ্ছে, তবে এবার মধ্যবিত্তের ইলেকট্রিক গাড়ি চড়ার স্বপ্ন পূরণ হতে পারে। ইলেকট্রিক গাড়ির দাম বেশি হওয়ার ফলে অনেকেই সেটি কিনতে পারেন না।

এবার মধ্যবিত্তের ইলেকট্রিক গাড়ি চড়ার স্বপ্ন পূরণ করতে চলেছে পিএমভি ইলেকট্রিক। সম্প্রতি কোম্পানীর চার চাকা ইলেকট্রিক গাড়ি ইএএস-ই ঘোষণা করেছে পিএমভি ইলেকট্রিক। এই গাড়ি একাধিক কনফিগারেশনে বাজারে এসেছে। বেস, মিউ, লং-রেঞ্জ ভেরিয়েন্টে কেনা যাবে এই ইলেকট্রিক কোয়াড্রিসাইকেল। ৪ লাখ টাকা থেকে এই গাড়ির এক্স শো-রুম দাম শুরু হচ্ছে। টপ ভেরিয়েন্ট কিনতে খরচ হবে ৬ লাখ টাকা। এই গাড়িতে দুই জন চড়তে পারবেন। এতে থাকছে একগুচ্ছ দুর্দান্ত ফিচার। থাকছে রিমোট পার্কিং অ্যাসিস্ট, রিমোট কানেক্টিভিটি, ডায়াগনস্টিক ও ক্রুজ কন্ট্রোলের মতো প্রিমিয়াম ফিচার।

পিএমভি ইএএস-ই গাড়ির দৈর্ঘ্য ২,৯১৫ এমএম। দৈর্ঘ্য কম হওয়ার কারণে খুব সহজেই এই গাড়ি পার্ক করা যাবে এবং এর সঙ্গে থাকছে ১৭০ এমএম গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স। যে কোন ধরনের রাস্তায় খুব সহজে এই গাড়ি চালানো যাবে। এই গাড়ির ইলেকট্রিক মোটর সামনের চাকায় শক্তি জোগাবে। এই গাড়িতে থাকছে একটি লিথিয়াম আয়রন ফসফেট ব্যাটারি। পিএমভি ইলেকট্রিক কোম্পানীর দাবি, এই ইলেকট্রিক গাড়ি এক চার্জে টানা ৪ ঘণ্টা চলবে। এই গাড়ির সর্বোচ্চ গতি ৭০কেএমপিএইচ। এতে তিনটি ভেরিয়েন্টে পৃথক রেঞ্জ মিলবে। বেস ভেরিয়েন্টে থাকছে ১২০ কেএম রেঞ্জ। মিড ও লং রেঞ্জে যথাক্রমে ১৬০ কেএম ও ২০০ কেএম রেঞ্জ পাওয়া যাবে।

গাড়ির কেবিনে থাকছে এয়ার কন্ডিশনিংয়ের সুবিধা। এই ইলেকট্রিক গাড়িতে দেখা যাবে এলইডি হেডল্যাম্প। এই গাড়ির স্টিয়ারিং হুইলে গাড়ির বিভিন্ন কন্ট্রোল থাকবে। ওটিএ আপডেটের মাধ্যমে গাড়ির ফার্মওয়্যার আপডেট করা যাবে, এছাড়াও থাকছে ডিজিটাল ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার, রিমোট কি-লেস এন্ট্রি, পাওয়ার উইন্ডো, ইলেকট্রনিকালি কন্ট্রোল্ড মিরর, রিয়ার ভিউ ক্যামেরার মতো প্রিমিয়াম ফিচারগুলি। ডুয়াল টোন ফিনিসে এই ইলেকট্রিক গাড়ি পাওয়া যাবে। স্পার্কেল সিলভার, ব্রিলিয়ান্ট হোয়াইট, ডিপ গ্রিন, প্যাশনেট রেড পেপি অরেঞ্জ, পিওর ব্ল্যাক ম্যাজেস্টিক ব্লু, ফাঙ্কি ইয়েলো, ভিনটেজ ব্রাউন এবং রয়্যাল বেইজ রঙে পাওয়া যাবে গাড়িটি।