ভয়ে কাঁপবে ভারতের শত্রু দেশ, উন্নত প্রযুক্তির অত্যাধুনিক অস্ত্র এল ভারতের হাতে

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তার দেশের সেনাবাহিনীদের শক্তিশালী করতে মোতায়ন করছেন নতুন নতুন প্রযুক্তি সম্পন্ন অস্ত্র ও বিভিন্ন রকম আধুনিক গেজেট। আর বিশেষ সূত্রের খবর থেকে জানা গেছে ভারতের সেনাবাহিনীদের লাদাখে, চীনের কার্যকলাপ পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে নজর রাখার জন্য ইসরাইল প্রদান করল অত্যাধুনিক হিরণ ড্রোন। আর ভারতীয় সেনাদের কাছে যে সমস্ত ড্রোন গুলি বর্তমানে রয়েছে সেগুলি থেকে ইজরায়েলের এই নতুন হিরন ড্রোনগুলো অনেক বেশি উন্নত। আর এগুলোর অ্যান্টি জ্যুমিং করার ক্ষমতা অনেক বেশি।

এই ড্রোনগুলো প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন-এ প্রতিরক্ষা বাহিনীকে দেওয়া জরুরি সামরিক ক্ষমতা তার অংশ হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে। এর অধীনে, প্রতিরক্ষা বাহিনী চীনের সাথে চলমান সীমান্ত সংঘর্ষের মধ্যে নিজেদের যুদ্ধের ক্ষমতা উন্নত করতে ৫০০ কোটি টাকার সরঞ্জাম এবং সিস্টেম কিনতে পারে। কিছু পূর্বে ভারত সরকার রাশিয়া থেকে অত্যাধুনিক সমস্ত মিসাইল ও আরো উন্নত প্রযুক্তি সম্পন্ন অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে এসেছিলেন এবার এই নতুন ইসরাইলের ড্রোনগুলো সম্পর্কে জানা যাক:-

* হেরন mark2 ড্রোনটি বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত প্রযুক্তিতে সুসজ্জিত।

* ড্রোনগুলি তাদের সাথে বিভিন্ন ধরনের পেলোড বহন করতে সক্ষম।

*এই ড্রোনের সর্বোচ্চ গতি ঘন্টায় ১৪০ নট।

*এই ড্রোন বিমানটিতে শক্তিশালী Rotex 915 IS ইঞ্জিন লাগানো আছে যা এটিকে ১০ হাজার মিটার উচ্চতায় উড়তে সাহায্য করে।

*হেরন মার্ক-২ ড্রোনটি পূর্বে নির্মিত হেরন ইউএভির একটি উন্নত মডেল।

*এখন এর সেন্সর বড় করা হয়েছে এবং উন্নত করা হয়েছে। যা এটিকে অত্যন্ত উন্নত করে তুলেছে। ভারতীয় সেনাবাহিনী তাদের ক্যাম্পে বসে শত্রুদের অবস্থান খুঁজে বের করবে।

২০১৯ সালে বালাকোট বিমান হামলার পরে ভারতীয় সেনাদের কাছে মোতায়েন করা হয়েছিল হিরন মার্ক টু ড্রোন গুলি। একই সময়ে, একই সুবিধা ব্যবহার করে, ভারতীয় নৌবাহিনী দুটি প্রিডেটর ড্রোনও লিজ নিয়েছে যা নেওয়া হয়েছে আমেরিকান ফার্ম জেনারেল অ্যাটমিক্স থেকে।