এমন শিক্ষা দিব পাকিস্তানের আগামী প্রজন্ম পর্যন্ত মনে রাখবে, 1971 এর কথা মনে করিয়ে হুংকার ভারতীয় সেনার…

যখন থেকে কাশ্মীর থেকে অনুচ্ছেদ 370 কে বিলোপ করা হয়েছে তখন থেকেই লক্ষ্য করা যাচ্ছে পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রীসহ, পাক ক্রিকেটার ও অন্যান্য নেতা মন্ত্রীরা বরাবর ভারতের সাথে যুদ্ধের ও পরমাণু হামলার হুমকি দিয়েই চলেছে। তবে এই ধারা বিলুপর আগে পর্যন্ত লক্ষ্য করা যেত পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে  সাধু সেজে যুদ্ধ দিয়ে কোন সমস্যার সমাধান হয় না বলতে।তবে যবে থেকে কাশ্মীরের 370 ধারা কে বাতিল করে দেওয়া হয়েছে তবে থেকে তারা ক্ষেপে উঠেছে।

কাশ্মীর থেকে যখন অনুচ্ছেদ 370 কে বাতিল করা হয় তখন পাকিস্তানের ইসলামাবাদ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে গিয়ে সকল দেশকে একজোট হয়ে এর বিরোধিতা করার জন্য দাবী করতে থাকে তবে তাদের এই ডাকে কেউ সাড়া দেয়নি। আর তারপর থেকেই তারা অবিরত ভারতে পরমাণু হামলার হুমকি যুদ্ধের হুমকি দিয়ে চলেছে। তবে এবার তাদের এই সমস্ত হুমকির কড়া জবাব দিলেন লেফটেনেন্ট জেনারেল কেজেএস ধিলোর। গতকাল বুধবার দিন একটি প্রেস কনফারেন্সের আয়োজন করেন লেফটেনেন্ট জেনারেল কেজেএস ধিলোর আর জম্মু কাশ্মীর পুলিশের এডিজি মুনির খান।

সেখানে তারা জানেন জম্বু কাশ্মীর থেকে ভারতীয় সেনাবাহিনী লস্কর-ই-তৈবার দুই জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছে। আর এই দুই জঙ্গি ইতিমধ্যে ই পাকিস্তানের ষড়যন্ত্রের কথা স্বীকার করে নিয়েছে।এই দিন ঢিলোন বলেন, কাশ্মীরে পাকিস্তান সন্ত্রাস ছড়াচ্ছে। ওই প্রেস কনফারেন্সে ধৃত দুই জঙ্গির ভিডিও জারি করে সেনা।
এইদিন লেফটেনেন্ট জেনারেল কে জে এস ধিলোর আরো বলেন যে পাকিস্তান বারবার উপত্যকার শান্তি ভঙ্গ করার চেষ্টা করছে।এবং যার দরুন পাকিস্তান বেশি করে কাশ্মীরে জঙ্গিদের অনুপ্রবেশ করানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে অবিরত।

গত 21 আগস্ট আমরা দুই পাকিস্তানি নাগরিককে গ্রেফতার করেছিল। তারা দুজনেই জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তৈবা এর সাথে যুক্ত ছিল।এদিকে সেনার জারি করা ভিডিওতে জঙ্গিদের বলতে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে যে তারা পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডির বাসিন্দা,আর তাঁরা মুজাহিদ্দিন এর হয়ে কাজ করে। জিজ্ঞাসাবাদ চলাকালীন তাঁরা অনেক কিছুই উগড়ে দেয়, যার ফলে পাকিস্তানের ষড়যন্ত্রের পর্দা ফাঁস হয়ে যায় সবার সামনে। তবে এখানেই শেষ নয় এইদিন লেফটেনেন্ট জেনারেল কে জে এস ধিলোর স্পষ্ট জানিয়ে দেন জম্মু-কাশ্মীরে শান্তি বিঘ্নিত করার চেষ্টা করলে পাকিস্তানকে সমুচিত জবাব দেবে ভারতীয় সেনা।

1971 সালের কথা স্মরণ করিয়ে চিনার কর্পসের কমান্ডার লেফট্যানান্ট জেনারেল কেজিএস ধিলোঁর হুঁশিয়ারি, পাকিস্তান অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করলে এমন শিক্ষা দেওয়া হবে যে তাদের আগামী প্রজন্ম ভুলতে পারবে না।

Related Articles

Close