টানা চল্লিশ ঘণ্টা অভিযানের পর, 60 ফুট গভীর গর্ত থেকে উদ্ধার করা হল দেড় বছরের শিশুকে…

বুধবার সন্ধ্যায় খেলতে খেলতে 18 মাসের শিশু টিউবওয়েলের গর্তে পড়ে যায়। এমনই এক ঘটনা ঘটে হরিয়ানার হিসার জেলার অন্তর্গত বালসামান্দ গ্রামে। টিউবওয়েলের 60 ফুট গর্তে দেড় বছরের শিশু নাদিম খান পড়ে গিয়েছিল। ওই 18 মাসের শিশুটির বাবার নাম আজম খান। নাদিম এর বাবা পেশায় দিনমজুর। এই ঘটনাটি শুনে ঘটনাস্থলে ভিড় জমায় গ্রামবাসীরা।শিশুটির গর্তে পড়ে যাওয়ার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সেনাবাহিনী ও ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স পৌঁছে যায় ঘটনাস্থলে। এদের যৌথ চেষ্টায় শিশুটিকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়। জেলার ডেপুটি কমিশনার অশোক কুমার মিনা জানিয়েছেন, শিশুটি এখন ভালো আছে। 40 ঘন্টার যৌথ অভিযানে শিশুটিকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

শিশুদের যাতে নিঃশ্বাস নিতে কোন অসুবিধা না হয় তার জন্য গর্তের ভিতর অক্সিজেনের সরবরাহ করা হয়েছিল। শিশুটিকে বিস্কুট ও ফলের রস খেতে দেওয়া হয়েছিল। টিউবওয়েলের এর গর্তের পাশে আরেকটি গর্ত করা হয়েছিল বলে জানা গেছে। কিন্তু সেই গর্ত কুড়ি ফুট কাটার পর থামানো হয়। কারণ যদি গর্ত করা হতো তাহলে শিশুটির মাটি চাপা পড়তে পারতো। তাই সেনাবাহিনী ঠিক করে সুরঙ্গ করা হোক। জিপিএস ট্র্যাকার দিয়ে গর্তের ভিতর শিশুটির অবস্থান জানতে পারে উদ্ধারকারী দল। এর পর অভিযান চলাকালীন নাইট ভিশন ক্যামেরা দিয়ে শিশুদের ওপর সব সময় নজর রাখা হয়েছিল। অশোক বাবু জানিয়েছেন কোন অনুমোদন ছাড়াই গর্তটি খোড়া হয়েছিল। এটি যারা করেছেন তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অশোক বাবু এও জানান শিশুটিকে উদ্ধার করার পর আগরোহা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এরকমই একটা ঘটনা গত কয়েক বছর আগে 2006 সালে একই কায়দায় 48 ঘণ্টার অভিযান চালিয়ে একটি 5 বছরের শিশুকে উদ্ধার করেছিল সেনাবাহিনী। অর্থাৎ সেনারা শুধু আমাদের দেশের শত্রুকে দমন করে না, এনারা দেশের ভবিষ্যৎ কেউ রক্ষা করে থাকে।

arghya maji

Argya, is an active political thinker likes to write on political topics. Graduated on Bengali. Email: arghyamaji420@gmail.com

Related Articles

Close