ভারতীয় সেনার মাস্টারস্ট্রোক : ২০১৮ তে ভারতীয় সেনা ভেঙে দিলো প্রায় সমস্ত রেকর্ড !

বহুদিন আগে একাধিকবার পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে ছিল জঙ্গিরা। তবে তাদের একের পর এক অভিযানকে নিকাশ করেছিল ভারতীয় সেনা বাহিনী।শেষ করে দেওয়া হয়েছিল হিট লিস্টে থাকা সন্ত্রাসবাদীদের। লাগাতার জঙ্গি নিধন অভিযানের জেরে কাশ্মীরে চলতি বছরেই 230 জন জঙ্গীকে শেষ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। তবে এখনো উপত্যকায় রয়েছে 240 জন জঙ্গি তাদের মধ্যে অনেকেই বহিরাগত। দেশের সীমানা পার করে তারা এসেছে এখানে। আর আপনাদের বলে রাখা ভালো যে কাশ্মীরকে অশান্ত করে তোলার পেছনে অনেক ভূমিকা পালন করছে এইসব জঙ্গিরা এরা খুবই সক্রিয় কাশ্মীরে। এখন তাদেরকে খুঁজে বের করে খতম করায় হলো ভারতীয় সেনাদের কাছে একটা চ্যালেঞ্জ।

আর অন্যদিকে সূত্র অনুসারে জানতে পারা গেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কাছ থেকে চলিত বছরই সেপ্টেম্বর থেকে ডিসেম্বর মাসে সবচেয়ে বেশি জঙ্গি শেষ করা হয়েছে 15 সেপ্টেম্বর থেকে 5 ডিসেম্বর সময়কালে মোট 85 জন জঙ্গীকে শেষ করে দেওয়া হয়েছে অন্যদিকে 25 জুন থেকে 14 সেপ্টেম্বর মাত্র 80 দিনের মাথায় 51 জন জঙ্গীকে পর্যন্ত খতম করে দিয়েছে ভারতীয় সেনা বাহিনী।তবে এই জঙ্গি নিধন কাজে শহীদ হয়েছে ভারতীয় 8 জন নিরাপত্তা কর্মী ও অফিসার আর আহত হয়েছেন 216 জনের মতো।তবে ভালো খবর একটাই যে ,আগের তুলনায় এখন আহতদের সংখ্যা অনেকটা কমিয়ে আনা গিয়েছে।

এর প্রধান কারণ হলো কাশ্মীরে পাথর ছোড়ার ঘটনা এই পাথর ছোড়ার ব্যাপারটা আগের তুলনায় অনেকটাই কমেছে।তবে এই অভিযানে অনেক সাধারণ মানুষও প্রাণ হারিয়েছে 15 সেপ্টেম্বর থেকে 5 ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়কালের দুই ব্যক্তি প্রাণ হারিয়েছিলেন এছাড়া 170 জন আহত হয়েছেন।এছাড়া আরও একটি উল্লেখযোগ্য ব্যাপার লক্ষ্য করা গেছে যেটা হলো মেহেবুবা মুফতি সরকারের চেয়ে রাষ্ট্রপতি শাসন কালে কাশ্মীরে আইন ব্যবস্থা অনেকটা উন্নত হয়েছে। যার ফলস্বরূপ আপনারা দেখতে পাচ্ছেন পাথর বাজি অনেকটা হারে কমেছে কাশ্মীরে চলিত বছরই  19 ই জুন পিডিপি সরকার থেকে বেরিয়ে আসে বিজেপি।

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close