এবার নতুন লুকে ধরা পড়বে ভারতীয় সেনাবাহিনী, ইউনিফর্ম বদলাবার পেছনে ছিল বড় কারন

এবার ইউনিফর্ম বদলাতে চলেছে ভারতীয় সেনা। আগামী ১৫ জানুয়ারি এই ইউনিফর্মের ঝলক আমরা সকলে দেখতে পাবো। প্রায় ১৩ লক্ষ সেনা এই নতুন ইউনিফর্ম পড়বেন। এই প্রথমবার প্রজাতন্ত্র দিবসের সেনাবাহিনীর পদ গুলি তাদের নিজ নিজ ইউনিফর্ম অনুসারে প্যারেড করবে। জওয়ানদের জন্য আধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন জলবায়ু বান্ধব পোশাক নিয়ে এসেছেন ভারতীয় সেনাবাহিনী। এই নতুন পোশাক আগের থেকে হবে অনেক হালকা এবং এই পোশাকে থাকবে জলবায়ুর সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার ক্ষমতা। নতুন ক্যামোফ্লেজ ইউনিফর্ম একটি ডিজিটাল ডিসরাপটিভ প্যাটারর্ণের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে।

শত্রুদের বোকা বানানোর জন্য এই পোশাকটি তৈরি করা হবে জলপাইয়ের মত নানান রঙের, যাতে দূর থেকে উপস্থিতি বোঝা না যায়। সৈন্যদের মোতায়েন করার ক্ষেত্রে এবং চরমভাবাপন্ন জলবায়ু উপর নির্ভর করে এই পোশাকটি বানানো হয়েছে। আর্মি ডে প্যারেডে এই পোশাকটি প্রদর্শিত করা হবে। বিভিন্ন দেশের সামরিক ইউনিফর্ম নিয়ে বিস্তীর্ণ আলোচনা এবং বিশ্লেষণের পর নতুন যুদ্ধ ইউনিফর্ম চূড়ান্ত করা হয়েছে। ভারতীয় সেনাবাহিনীদের মতে,নতুন ইউনিফর্ম অনেক বেশি টেকসই হবে এবং গ্রীষ্ম এবং শীত উভয় সময়ে এটি পড়লে আরামদায়ক বোধ হবে জওয়ানদের।

নতুন পোশাকটি সরাসরি ট্রাউজারের সঙ্গে আটকানো থাকবে না। তবে এটি এখনও স্পষ্ট নয় যে, পোশাকের কাধে, বুকে বা কলারে থাকা চকচকে স্টার অথবা ব্যাচ ছদ্মবেশের জন্য কালো করা হবে কিনা। ভারতীয় নৌ-বাহিনীও গত বছর একটি নতুন ছদ্দবেশী ইউনিফর্ম চালু করেছে।

উল্লেখ্য, ভারতীয় নৌ বাহিনী তার আগের হালকা নীল হাফ হাতা শার্ট এবং নেভিব্লু ট্রাউজার পরিবর্তন করে গত বছর একটি ডিজিটাল ক্যামোফ্লেজ প্যাটার্ন ইউনিফর্ম চালু করেছে। তবে সেনাবাহিনী, নৌ বাহিনী এবং আই এফ এর সেনাবাহিনীদের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে পরার জন্য বিভিন্ন সেট ইউনিফর্ম রয়েছে, যেটা তাঁরা ব্যবহার করেন।