৩.১ ট্রিলিয়ন ডলারের অর্থনীতির দেশে পরিণত হল ভারত, গড়ল নতুন ইতিহাস

গত দুই বছর যে মহামারী রোগে আক্রান্ত হয়েছে গোটা বিশ্ব তাতে সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রতিটি দেশের অর্থনীতি। মনে করা হচ্ছে, প্রত্যেকটি দেশের অর্থনীতিতে এমন পরিবর্তন চলে আসবে, যে আগামী ১০ বছরে সারা বিশ্বের কাছে এমন একটি দৃষ্টান্ত উপস্থাপিত হবে, যা আজ পর্যন্ত কেউ কোনোদিন ভাবতে পারেনি। অর্থনৈতিক দিক থেকে ভারত আগামী আট বছরে বিশ্বের প্রধান অর্থনৈতিক শক্তিতে পরিণত হতে চলেছে। জাপানকে পেছনে ফেলে দিয়ে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি পরিণত হয়ে যাবে ভারতবর্ষ।

আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক পর্যবেক্ষণ সংস্থা আইএইচএস মার্কেট অনুমান করেছে যে, ২০৩০ সালের মধ্যে ভারত এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি এবং বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি দেশে পরিণত হয়ে যাবে। ভারতের থেকে শুধুমাত্র এগিয়ে থাকবে আমেরিকা এবং চীন। আই এইচ এস মার্কেট সর্বশেষ প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ২০৩০ সালের মধ্যে ভারত এশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ হিসেবে জাপানকে পিছনে ফেলে দেবে।

বর্তমানে অর্থনীতির দিক থেকে ভারতের স্থান ষষ্ঠ। ভারতের আগে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র,চীন,জাপান জার্মানি প্রভৃতি আরো প্রথম বিশ্বের দেশ। তবে এটি অবশ্যই ভারতের জন্য একটি বড় ব্যাপার প্রমাণিত হবে। সারা বিশ্বের সামনে ভারতের সুনাম বাড়বে এবং ভারতকে একটি অর্থনৈতিক দিক থেকে শক্তিশালী দেশ হিসেবে গণ্য করা হবে।

প্রসঙ্গত, আইআইএইচ এস মার্কিন বিশ্বের অর্থনীতি বিশ্লেষণ করে এবং তার ওপর ভিত্তি করে প্রতিবেদন উপস্থাপন করে। আইএইচএস মার্কিন লিমিটেড তার সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে বলেছে, ডলার পরিপ্রেক্ষিতে ভারতের নামমাত্র জিডিপি ২০২১ সালে ২.৭ ট্রিলিয়ন ডলার থেকে ২০৩০ সালের মধ্যে ৮.৭ ট্রিলিয়ন ডলারে উন্নতি হতে পারে।

আইএইচএস মার্কিন রিপোর্টে বলা হয়েছে, “ভারতের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ইতিবাচক কারন হল এর বৃহৎ এবং দ্রুত বর্ধনশীল মধ্যবিত্ত সম্প্রদায়, যা ভোক্তাদের খরচ চালাতে সাহায্য করছে। ভারতের দ্রুত বর্ধমান তরুণ জনসংখ্যা এই অর্থনীতির বৃদ্ধিতে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে”।